টাইমলাইনবিনোদন

বয়ান রেকর্ড করতে ইডির দফতরে হাজির রিয়া চক্রবর্তী, ক‍্যামেরা দেখেই লুকালেন মুখ

বাংলাহান্ট ডেস্ক: অবশেষে অজ্ঞাতবাস থেকে প্রকাশ‍্যে এলেন রিয়া চক্রবর্তী (rhea chakraborty)। শুক্রবার সুশান্ত সিং রাজপুত (sushant singh rajput) কাণ্ডে বয়ান রেকর্ডের জন‍্য ইডির (ED) দফতরে হাজিরা দেন রিয়া। সঙ্গে ছিলেন ভাই সৌভিক চক্রবর্তী। মাথা, মুখ ঢেকে সংবাদ মাধ‍্যমের ক‍্যামেরা থেকে একরকম পালিয়েই ইডির দফতরে ঢোকেন রিয়া।
সুশান্ত মৃত‍্যুর তদন্তের দায়িত্ব যেদিন সিবিআই এর হাতে তুলে দেওয়া হয় সেদিনই জানা গিয়েছিল শুক্রবার রিয়াকে বয়ান রেকর্ডের জন‍্য ডেকে পাঠিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। কিন্তু রিয়া এদিন আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের শুনানির দিন পর্যন্ত তাঁকে সময় দেওয়া হোক বয়ান রেকর্ডের জন‍্য। এমনটাই জানান রিয়ার আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে।


কিন্তু রিয়ার সেই আবেদন খারিজ করে ইডির তরফে সাফ জানানো হয় যেদিন বয়ান রেকর্ডের জন‍্য ডাকা হয়েছে সেদিনই হাজিরা দিতে হবে রিয়াকে। নতুবা তাঁর বিরুদ্ধে হাজিরা দিতে অসমর্থ হওয়ার অভিযোগ দায়ের করা হবে। এরপরই তড়িঘড়ি ভাই সৌভিকের সঙ্গে ইডির দফতরে যান রিয়া।
মুখে মাস্ক, সাদা ওড়না দিয়ে ঢাকা মাথা, ইডির দফতরের সামনে এমন ভাবেই হাজির হন রিয়া। সংবাদ মাধ‍্যমের ক‍্যামেরা দেখে একপ্রকার মুখ লুকিয়েই দফতরে ঢুকে যান তিনি। বৃহস্পতিবার রিয়া সহ মোট ৬ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয় সিবিআই এর তরফে। এরপরই রিয়া অভিযোগ করেন, যতক্ষণ না সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ আসছে ততক্ষণ সিবিআই তদন্ত শুরু করতে পারে না। এটা বেআইনি এবং যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর পরিপন্থী।

রিয়া আরও অভিযোগ করেন, সুশান্তের মৃত‍্যু হয়েছে মুম্বইতে। এমতাবস্থায় বিহার পুলিস ও সিবিআই কিকরে তদন্ত করতে পারে বলে প্রশ্ন তোলেন তিনি। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট গত ৫ অগাস্টই রায় দিয়েছে সুশান্ত মামলায় বিহার ও মুম্বই পুলিস উভয়ই নিজেদের মতো তদন্ত করতে পারে। তারপর এই মামলার তদন্তের ভার তুলে দেওয়া হয় সিবিআই এর হাতে।


প্রসঙ্গত, সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত‍্যুর এক মাস পূর্ণ হওয়াতে সোশ‍্যাল মিডিয়ায় নিজেকে অভিনেতার প্রেমিকা রূপে পরিচয় দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাছে সিবিআই তদন্তের দাবি করেন রিয়া। এখন যখন সত‍্যি সত‍্যিই সিবিআই তদন্ত হচ্ছে এখন পাল্টা অভিযোগ করতে শুরু করেছেন তিনি।

Back to top button
Close