টাইমলাইনখেলা

অনিশ্চিতার মুখে রবি শাস্ত্রীর কোচিং ভবিষ্যৎ। নুতন করে নিয়োগ হতে পারে কোহলিদের হেড কোচ।

কিছু দিন আগেই ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচের দায়িত্ব পেয়েছেন রবি শাস্ত্রী। এবার সেই রবি শাস্ত্রীকে ছাড়তে হতে পারে সেই দায়িত্ব অর্থাৎ ফের একবার কোহলিদের কোচের দায়িত্ব আসতে পারেন অন্য কেউ। ফের একবার নুতন ভাবে নিয়োগ হতে পারে ভারতীয় দলের কোচ। তবে কোচের দায়িত্বে কিন্তু কোনো ভুল করেন নি রবি শাস্ত্রী। কিন্তু তাও ফের একবার নিয়োগ হতে পারে ভারতীয় দলের কোচ। অর্থাৎ কোহলিদের কোচ হওয়ার জন্য আবারও পরীক্ষায় বসতে হতে পারে রবি শাস্ত্রীকে।

বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার পরই নুতন করে নিয়োগ করা হয় ভারতীয় দলের কোচ। তারপর ফের একবার নিজের যোগ্যতা প্রমান করে ভারতীয় দলের কোচের দায়িত্ব পান রবি শাস্ত্রী। যদিও শাস্ত্রীকে কোচ করা নিয়ে তীব্র সমালোচনা হয়েছিল কিন্তু শেষপর্যন্ত শাস্ত্রীই ভারতীয় দলের কোচ হন। আর দ্বিতীয় বার জাতীয় দলের কোচ হওয়ার পর শাস্ত্রীর সাথে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের চুক্তি হয় 2020 সালের টি-টোয়েন্টি ওয়াল্ড কাপ পর্যন্ত। এবার ফের একবার নুতন করে ঝামেলা এসে পড়ল ভারতীয় দলে শাস্ত্রীর কোচিং ভবিষ্যত নিয়ে।

সম্প্রতি স্বার্থের সংঘাত ইস্যুতে নাম জড়িয়েছে সিএসির প্রধান সদস্য তথা বিশ্বকাপ জয়ী ভারত অধিনায়ক কপিলদেব সহ সিএসির অন্য দুই সদস্য শান্তা রাঙ্গাস্বামী এবং অংশুমান গায়কোয়াডের। আর এই তিন জনের নেতৃত্বাধীন সিএসির কাছ থেকে ভারতীয় দলের হেড কোচ হওয়ার ছাড়পত্র পেয়েছিলেন রবি শাস্ত্রী।

এর ফলে এখন যদি এই তিনজন সিএসি সদস্যের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সত্যি প্রমাণিত হয় তাহলে সরাসরি ভারতীয় দলের কোচের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে রবি শাস্ত্রীকে। সেই সাথে ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের হেড কোচকেও পড়তে হবে সমস্যায়। এখন অপেক্ষা কপিল দেব দের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সত্যি নাকি মিথ্যা। এখন সেই রিপোর্টের উপড়ই নির্ভর করছে রবি শাস্ত্রীর ভবিষ্যৎ।

Related Articles

Back to top button