টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

BREAKING: কাবুলে রাষ্ট্রপতি ভবনে রকেট হামলা, বকরি ঈদের নামাজের সময় আছড়ে পড়ে তিনটি মিসাইল

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ আফগানিস্তান (Afghanistan) থেকে আমেরিকা সেনা ফিরিয়ে নেওয়ার পর থেকেই সেখানে তালিবানি (Taliban) জঙ্গিদের আতঙ্ক দিনদিন বেড়েই চলেছে। আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে (Kabul) মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতি ভবনের পাশে এক ভয়ানক রকেট হামলা হয়। এই হামলায় আফগানিস্তানে নতুন করে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। রাষ্ট্রপতি আশরফ গানি বকরি ঈদে নামাজে অংশ নিতে যাওয়ার সময় এই হামলা হয়। জানা গিয়েছে যে, পরপর তিনটি রকেট দিয়ে হামলা করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, দেশের ভিতরে আফগান তালিবান দ্বন্দ্ব নিয়ে এই মুহূর্তে এই মুহূর্তে রীতিমতো জর্জরিত আফগানিস্তান। আমেরিকা সে দেশ থেকে মার্কিন সেনাবাহিনী প্রত্যাহার করার পরেই ফের একবার রীতিমতো সক্রিয় হয়ে উঠেছে তালিবানি জঙ্গি সংগঠনগুলি। ইতিমধ্যেই দেশের প্রায় ৮০% এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের দাবি জানিয়েছে তারা। যার জেরে এই মুহূর্তে রীতিমতো জর্জরিত আফগান সেনা। যদিও তারা আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে তালিবান দখলীকৃত এলাকাগুলিকে ফের একবার উদ্ধার করার। তবে পাকিস্তানের সাহায্য নিয়ে এই মুহূর্তে তালিবানরা যে ভীষন শক্তিশালী বলাই বাহুল্য।

জানা গিয়েছে, তাদের অন্যতম মূল লক্ষ্য আফগানিস্থানে গড়ে ওঠা ভারতীয় বিনিয়োগ গুলিকে ধ্বংস করে দেওয়া। এর আগেও আফগানিস্তানের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক নিয়ে একাধিকবার প্রকাশ্যেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পাকিস্তান (Pakistan)। এবার কার্যত তালিবানের সঙ্গে হাতে হাত রেখে আফগানিস্থানে ভারতের তৈরি সমস্ত পরিকাঠামোগুলি ধ্বংস করার দিকে এগিয়ে চলেছে তারা। জানা গিয়েছে ২০০১ সাল থেকেই আফগানিস্তানের সঙ্গে ভারতের সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে। যার জেরে তারপর থেকেই সে দেশে একাধিক বিষয়ে বিনিয়োগ করে আসছে ভারত।

এমনও জানা গিয়েছে পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই (ISI) নির্দেশ দিয়েছে আগে ভারতের তৈরি পরিকাঠামো এবং ভারতীয় বসতিগুলিকে ধ্বংস করা হবে। শুরু থেকেই এ বিষয়ে কড়া নজর রেখে আসছে ভারতও। ইতিমধ্যেই নির্মাণ কর্মীদের ফিরিয়ে নিয়ে আসার কথা বলা হয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার আফগানিস্থানে বিনিয়োগ করেছে ভারত। তার মধ্যে যেমন রয়েছে ২১৮ কিলোমিটারব্যাপী ডেলারাম থেকে জারাঞ্জ অবধি রাস্তা, তেমনি রয়েছে ভারত আফগানিস্তান মৈত্রী বাঁধ, এমনকি আফগানিস্তানের সংসদ ভবন অবধি নির্মাণ করেছিল ভারত।

তালিবানদের দাবি অনুযায়ী, শুধু আফগানিস্তানই নয় ইরান, উজবেকিস্তানের সীমান্ত ঘাঁটি গুলিরও দখল নিয়েছে তারা। যার জেরে এই মুহূর্তে রীতিমতো সমস্যায় রয়েছে আফগানিস্তানের দেশবাসী। এখন আগামী দিনে পরিস্থিতি কি দাঁড়ায় সে দিকেই নজর থাকবে সকলের।

Related Articles

Back to top button