টাইমলাইনবিনোদন

বাংলার লজ্জা! ‘দালাল শিল্পী’ না হওয়ায় হেনস্থা রশিদ খানকে, অভিযোগ ক্ষুব্ধ রুদ্রনীলের

বাংলাহান্ট ডেস্ক: ওস্তাদ রশিদ খানের (Ustad Rashid Khan) গাড়ি চালককে হেনস্থার অভিযোগ নিয়ে সরগরম বিনোদন তথা রাজ‍্য রাজনীতি। সঙ্গীতশিল্পীর গাড়ির চালকের কাছ থেকে ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। তা দিতে অস্বীকার করায় থানায় নিয়ে যাওয়া হয় গাড়ি চালক এবং শিল্পীর দেহরক্ষীকে। পরে রশিদ খানকে নিজে থানায় গিয়ে তাঁদের ছাড়াতে হয়। এ ঘটনায় ছিছিক্কার পড়ে গিয়েছে সাংষ্কৃতিক জগতে।

ঘটনার প্রসঙ্গ টেনে এবার সরাসরি রাজ‍্য সরকার এবং পুলিসের উদ্দেশে তোপ দাগলেন অভিনেতা তথা বিজেপির তারকা সদস‍্য রুদ্রনীল ঘোষ (Rudranil Ghosh)। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের হাত থেকে ওস্তাদ রশিদ খানের পদ্মভূষণ নেওয়ার ছবি শেয়ার করেছেন তিনি।

rashid khan
সঙ্গে লিখেছেন, ‘তৃণমূলের উন্নয়নের গুঁতোয় শিল্প তো অনেক আগেই বাংলা ছেড়েছে, এবার গর্বের শিল্পীরা বাংলা ছাড়বেন পুলিশমন্ত্রীর অনুপ্রেরণায়। পদ্ম ভূষণ উস্তাদ রসিদ খানের গাড়ি আটকে পুলিশি হেনস্থা, অসম্মান, তাঁর স্ত্রী মেয়েকে অশালীন মন্তব্যের কারণ একটাই!! তিনি দালাল শিল্পী নন! তিনি রাজ্যের লুটেরা সরকারের নির্বাচনী প্রচারে নেমে মানুষ ঠকান না। দেশ তথা বাংলার গর্ব রসিদ খান’জী আজ মানসিক যন্ত্রণায় স্বপরিবারে বাংলা ছাড়ার কথা ভাবছেন। পুলিশমন্ত্রী চুপ!! এ সারা বাংলার লজ্জা।’

এরপরেই পুলিস মহলকে কাঠগড়ায় তুলেছেন রুদ্রনীল। ‘যে পুলিশ শাসক পক্ষের সমর্থক না হলেই যাকে তাকে  গাঁজা, বোম বন্দুক, রেপ, খুন,অশান্তি ও হিংসা ছড়ানো,গুপ্তচর বৃত্তির মতো মিথ্যে কেস দিয়ে মালকিনকে খুশী করার চেষ্টা করে, – তাদের জন্য আরও বাড়ল করুণা’, কটাক্ষ রুদ্রনীলের।

তিনি আরো লিখেছেন, ‘সফিকুল ইসলাম, মানব গুহ, শুদ্ধশীল, পৌলমীর মত সৎ ইউটিউবার থেকে অরাজনৈতিক সাধারণ মানুষ, কেউ এই অত্যাচারের বাইরে নয়। হয় চুরি জোচ্চুরি ঘুষ অন্যায় মানুন, নয় অত্যাচারিত হোন, – এই হল এরাজ্যের অনুপ্রেরণা।’


মঙ্গলবার রাতে ওস্তাদ রশিদ খানের পরিচিত এক শিল্পীকে দমদম বিমানবন্দরে পৌঁছে দিতে গিয়েছিল তাঁর গাড়ি। কিন্তু বেলেঘাটায় আটকে দেওয়া হয় গাড়িটি। অভিযোগ উঠেছে, শিল্পীর গাড়ির চালক এবং তাঁর দেহরক্ষীর কাছ থেকে ঘুষ চাওয়া হয়।

কিন্তু দিতে অস্বীকার করেন তাঁরা। এরপরেই হেনস্থার সম্মুখীন হন তাঁরা। অভিযোগ করা হয়েছে শিল্পীর গাড়ির চালককে আটক করে প্রগতি ময়দান থানাতেও নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। রশিদ খানের কাছে খবর পৌঁছাতে সময় লাগেনি। তিনি নিজে ফোন করেন থানায়। পালটা প্রখ‍্যাত শিল্পীকে থানায় যেতে বলা হয় বলে খবর।

জানা যাচ্ছে, সেদিনই ওস্তাদ রশিদ খান নিজে থানায় উপস্থিত হন। গাড়ি চালককে ছাড়িয়ে বাড়ি ফিরিয়ে আনেন তিনিই। গোটা ঘটনাটা প্রকাশ‍্যে আসতেই চাঞ্চল‍্য ছড়িয়েছে। এমন বড়মাপের একজন শিল্পীর পরিবারকে হেনস্থা, তার উপরে ঘুষের দাবি করার মতো গুরুতর অভিযোগে নড়েচড়ে বসেছে বিভিন্ন মহল।

Related Articles