টাইমলাইনফুটবলখেলা

১০ জন স্বদেশি ফুটবলার নিয়ে মরিয়া লড়াই রেনেডির ইস্টবেঙ্গলের, আটকে গেল লিগের সেরা মুম্বাই সিটি

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: অনবদ্য চোয়াল চাপা লড়াই। ফলস্বরূপ গত দুই বছর ধরে আইএসএলের সেরা দল বলে পরিচিত মুম্বাই সিটি এফসিকে রুখে দেওয়া। চলতি মরশুমের ইস্টবেঙ্গলের কতটা হতশ্রী অবস্থা, তা সমর্থকরা খুব ভালো করেই জানেন। তা সত্ত্বেও প্রতিদিন আশা নিয়ে টিভির সামনে তারা বসে পড়েন। দেখতে চান মাঠে নামা ১১ জন জয় এনে দিতে না পারলেও জার্সির জন্য লড়াই করছে। ঠিক সেটাই করে দেখালো রেনেডি সিংয়ের এসসি ইস্টবেঙ্গল।

চলতি মরশুমে ইস্টবেঙ্গল ১০ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে সবচেয়ে নীচে রয়েছে। অপরদিকে সমসংখ্যক ম্যাচ খেলে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগের শীর্ষে মুম্বাই সিটি এফসি। শেষকিছু ম্যাচে পরিচিত ছন্দে দেখা না গেলেও কোনও সন্দেহ নেই। কলকাতার আর এক ক্লাব এটিকে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে ম্যাচে সবুজ মেরুণ ব্রিগেডকে গোলের মালা পড়িয়ে ছিল তারা। এমন দলের বিরুদ্ধে ইস্টবেঙ্গল আজ নেমেছিল মাত্র এক বিদেশি সম্বল করে।

কারোর চোট, কারোর সাসপেনশন, কারোর আবার অফফর্ম। মাঠে নামা একমাত্র বিদেশি ড্যানিয়েল চিমা চুকু ইতিমধ্যেই সমর্থকদের চোখের বিষ হয়ে উঠেছেন। কোনও সমর্থকই হয়তো আজকের ম্যাচ থেকে কোনও পয়েন্ট আশা করেননি। এই অবস্থায় ম্যাচ শুরু হওয়ার পর মুম্বাইয়ের সাথে সমানে সমানে পাল্লা দেয় ইস্টবেঙ্গল।

আদিল খান, হীরা মন্ডল-দের দুর্দান্ত লড়াইয়ে ৯০ মিনিট পর স্কোরবোর্ড থাকলো গোলশূন্য। ড্যানিয়েল চিমা সহজ সুযোগ নষ্ট না করলে জয়ও পেতে পারতো ইস্টবেঙ্গল। মুর্তাদা ফল, ঈগর অ্যাঙ্গুলো, বিপিন সিং-দের সাথে পাল্লা দিয়ে লড়েছে ইস্টবেঙ্গল টিম। ম্যাচের প্রথমার্ধেই এক সেন্টার ব্যাক চোট পেয়ে বেরিয়ে যাওয়ায় অঙ্কিত মুখার্জি-কে অনভ্যস্ত পজিশনে খেলতে হয়। তাতে দমে যায়নি রেনেডি সিং-য়ের দল। দ্বিতীয়ার্ধে মরিয়া আক্রমণ করেও লিগের সেরা মুম্বাই চূড়ান্ত টালমাটাল ইস্টবেঙ্গলকে ভাঙতে পারেনি। ১০ জন স্বদেশী ফুটবলার নিয়ে মুম্বাইয়ের বিরুদ্ধে এহেন লড়াই দেখে খুশি সমর্থকরাও।

Related Articles

Back to top button