fbpx
টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

সমাবর্তন অনুষ্ঠানকে ঘিরে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে শান্তিনিকেতন চত্বর,চলছে নাকা তল্লাশি

সৌতিক চক্রবর্তী,শান্তিনিকেতন,বীরভূমঃ আজ বিশ্বভারতীর সমাবর্তন অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বিশ্বভারতীতে গতকালই শান্তিনিকেতনের মাটিতে পা রেখেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। পাশাপাশি ওঁনার সঙ্গেই শান্তিনিকেতনে আসেন রাজ্যের রাজ্যপাল জগদীশ ধনকড়। আজ সকাল সাড়ে ১০ টায় শান্তিনিকেতনের আম্রকুঞ্জে এই সমাবর্তন অনুষ্ঠান আরম্ভ হবে। সেইখানেই উপস্থিত হবেন রাষ্ট্রপতি। রাষ্ট্রপতি সফর’কে কেন্দ্র করে তৎপর বীরভূম পুলিশ প্রশাসন।বিশ্বভারতীর কয়েক দফা দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয়েছে আঁটোসাঁটো। রবিবার থেকেই বোলপুর সহ শান্তিনিকেতনের এলাকাগুলিতে নজরদারি ছিল জোরদার। চলছে নাকা তল্লাশি। রবিবার থেকেই অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি ও রাজ্যপালের নিরাপত্তা কথা মাথায় রেখেই প্রশাসনের উদ্যোগে গঠন করা হয়েছে অফিসার সহ সাড়ে ১৪০০ জনের একটি নিরাপত্তা বাহিনী। এছাড়াও ১৪০ জন ইন্সপেক্টর পদমর্যাদার অফিসার,৬০০ জন সিভিক ভলেন্টিয়ার সহ ৮ জন SP পদমর্যাদার অফিসার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকছেন। পাশাপাশি IG,DIG পদমর্যাদার অফিসারেরা থাকছেন রাষ্ট্রপতি ও রাজ্যপালের নিরাপত্তা হিসেবে। অনুষ্ঠান চলাকালীন ২ টি ড্রোন দিয়ে নজরদারি চালানো হবে। আম্রকুঞ্জ,সভাস্থল,অনুষ্ঠান স্থল, নাট্য ঘরে প্রায় ১০০ টি CC ক্যামেরা বসানো হয়েছে। এক নিরাপত্তা আধিকারিক জানান,‘যে সিসি ক্যামেরা গুলি বসানো হয়েছে সেইগুলি ঠিকঠাক কাজ করতে শুরু করে দিয়েছে।’

বিশ্বভারতীর এক অধ্যাপক জানান,“পুলিশ ও অন্যান্য নিরাপত্তারক্ষীর সঙ্গে বিশ্বভারতীর বিভিন্ন গেট ও অনুষ্ঠানস্থলের গেট গুলিতে আমাদের প্রায় ৩০০ জন অধ্যাপক ও কর্মীদের সঙ্গে ছাত্র ছাত্রীদের ভলেন্টিয়ার হিসাবে রাখা হয়েছে।”

এক কথায় বলা যায় রাষ্ট্রপতি ও রাজ্যপালের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই শান্তিনিকেতন চত্বর নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে।

Leave a Reply

Close
Close