টাইমলাইনবিনোদন

করোনা পরিস্থিতিতে পঁচিশ হাজার কলাকুশলীকে ১৫০০ টাকা করে আর্থিক সাহায‍্য দেওয়ার সিদ্ধান্ত সলমনের

বাংলাহান্ট ডেস্ক: করোনার (corona) দ্বিতীয় ঢেউয়ের বাড়বাড়ন্ত শুরু হতেই আংশিক লকডাউনের পথে হেঁটেছে মহারাষ্ট্র। ক্রমান্বয়ে বাড়তে থাকা করোনার জন‍্য মুম্বইয়ের রাস্তাঘাট, শুটিং ফ্লোরেও নিরাপত্তার কড়াকড়ি দেখা গিয়েছে। এমন অবস্থায় অসহায় ও করোনা আক্রান্তদের সাহায‍্যের জন‍্য এগিয়ে এসেছেন বহু বলি তারকা।

আগেই দুঃস্থ মানুষদের জন‍্য খাবার পাঠানোর ব‍্যবস্থা করেছিলেন সলমন খান (salman khan)। এবার ইন্ডাস্ট্রির সব কলাকুশলীদের জন‍্যও সাহায‍্যের হাত বাড়ালেন তিনি। টেকনিশিয়ান, মেকআপ আর্টস্ট, স্টান্টম‍্যান, স্পটবয়দের জন‍্য মাসিক ১৫০০ টাকা করে দেওয়ার ব‍্যবস্থা করলেন তিনি।


ইতিমধ‍্যেই ফেডারেশন অফ ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়ান সিনে এমপ্লয়ীজের তরফে ২৫০০০ কলাকুশলীর নামের তালিকা পাঠানো হয়েছে সলমনকে। তাদের প্রত‍্যেককে ১৫০০ টাকা করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অভিনেতা। এছাড়া যশ রাজ ফিল্মস জানিয়েছে ৩৫০০০ প্রবীণ কলাকুশলীর জন‍্য আর্থিক সাহায‍্য করবে তারা।

এই কলাকুশলীদের চার সদস‍্যের এক একটি পরিবারকে ৫০০০ টাকা ও মাসের রেশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যশ রাজ ফিল্মস। সলমন ও YRF প্রযোজনা সংস্থাকে সব কলাকুশলীদের নাম ও ব‍্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তথ‍্য পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে শিবসেনার যুব শাখার সঙ্গে হাত মিলিয়ে মোট ৫ হাজার করোনা যোদ্ধার খাবার ও পানীয়ের দায়িত্ব নিয়েছেন অভিনেতা। এই যোদ্ধাদের মধ‍্যে রয়েছেন চিকিৎসক, নার্স, পুরসভার কর্মীরা।


সলমনের সংস্থা ভাইজানস কিচেন থেকে আসছে খাবারের প‍্যাকেট ও পানীয় জল। সবার হাতে হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে সেই খাবার ও জল। সলমন নিজে দাঁড়িয়ে থেকে পুরো বিষয়টা পর্যবেক্ষণ করছেন।

শুধু ভাইজানই নন, তাঁর মা সলমা খান বাংলোর নিরপত্তারক্ষীদের জন‍্য নিজে হাতে খাবার বানিয়েছেন বলে খবর। জানা গিয়েছে যতদিন এই লকডাউন চলবে ততদিন পর্যন্ত সলমনের ভাইজানস কিচেন ও শিবসেনার যুব শাখা মিলিত ভাবে এই কাজ করে যাবে। বাইকুল্লা থেকে জুহু এবং পূর্ব বান্দ্রা থেকে বিকেসি পর্যন্ত পৌঁছানো হচ্ছে খাবার ও পানীয়।

Related Articles

Back to top button