টাইমলাইনভারত

বাঙালি আবেগকে আঘাত করে নেতাজির মৃত্যুদিন ঘোষণা করলো পিআইবি।

বিতর্কের মুখে সম্বিত পাত্র

বাংলা হান্ট ডেস্ক: গুগলে সুভাসচন্দ্র বসু টাইপ করে সার্চ করলেই নেতাজি সম্পর্কে যে সংক্ষিপ্ত তথ্য পওয়া যায় তা অনুযায়ী আজকের দিনেই মারা যান নেতাজি। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, কোন তথ্যের ভিত্তিতে নেতাজির মৃত্যুর তারিখ ও কারণ এত নিশ্চিত ভাবে জানিয়ে দেওয়া হল?

১৯৪৫ সালের ১৮ অগাস্ট, তাইওয়ানের তাইহোকু বিমাবন্দরে বিমানে ওঠার আগে শেষবার দেখা গিয়েছিল নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে। তারপর থেকে আর কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি তাঁর। বহু বিতর্ক, বহু দাবি নিয়ে বারবার আলোড়ন উঠেছে। কিন্তু নিখোঁজ রহস্য থেকে গিয়েছে সাধারণের চোখের আড়ালেই।

কিন্তু আজ সরকারি ভাবে নেতাজির ‘মৃত্যুদিন’ ঘোষণা করল পিআইবি। এদিন নিজেদের টুইট হ্যান্ডেলে একটি ছবি পোস্ট করে প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো। সেই ছবিতেই আজকের দিনটিকে নেতাজির ‘মৃত্যুদিন’ হিসেবে সরকারি ভাবে ঘোষণা করা হয়েছে।

সম্বিত পাত্রের শেয়ার করা ছবিটি তে আজকের দিনটিকে ‘মৃত্যুবার্ষিকী’ হিসেবে উল্লেখ করে নেতাজিকে শ্রদ্ধা জানান তিনি। স্বাধীনতার লড়াইয়ে জাতির উদ্দেশে নেতাজির ডাক, “তোমরা আমাকে রক্ত দাও, আমি তোমাদের স্বাধীনতা দেব”, সেই উক্তিকে স্মরণ করে ১৯৪৫ সালটিকে নেতাজির ‘মৃত্যুসাল’ হিসেবে উল্লেখ করা করলেন।

এই ছবি প্রকাশ্যে আসতেই দেশজুড়ে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। পিআইবি-র এই টুইট প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে নেতাজি পরিবারের সদস্য এবং বিজেপি নেতা চন্দ্র বসু মন্তব্য করেছেন, “কোথাও একটা ভুল হচ্ছে। কোথাও কোনও ত্রুটি থেকে যাচ্ছে।”

অন্যদিকে, আজ সকালে নেতাজির অন্তর্ধান নিয়ে টুইট করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। নেতাজির নিখোঁজের রহস্য জানার অধিকার সকল দেশবাসীর রয়েছে বলে টুইটে লেখেন তিনি।

Related Articles

Back to top button