টাইমলাইনফুটবলখেলা

মার্ক হ্যামিলকে নিয়েও স্বস্তি নেই এটিকে মোহনবাগানে, ক্লাব ছাড়তে পারেন সন্দেশ ঝিঙ্গান

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়ান এ লিগ থেকে ব্রেন্ডন হ্যামিলকে তুলে আনার পর তিরির না থাকার দুশ্চিন্তা কেটেছিল এটিকে মোহনবাগান ভক্তদের। দুই বছরের চুক্তিতে সবুজ মেরুন শিবিরে যোগ দিয়েছেন এই তারকা ডিফেন্ডার। সেই সঙ্গে আরও বেশ কয়েকটি চমক লাগানো সাইনিং বেশ খুশি খুশি পরিবেশ তৈরি করেছিল জুয়ান ফের্নান্দোর বাগানে। কিন্তু সেই সুখের সংসারে কিছুটা ধাক্কা লাগল যখন একজন তারকা প্লেয়ারের দল ছাড়ার সম্ভাবনার খবর সামনে আসলো।

যারা নিয়মিত আইএসএল ফলো করে থাকেন তারা জুয়ান ফের্নান্দোর কোচিং শৈলীর সাথে পরিচিত। বল পায়ে নিয়ে খেলা আগে বাড়াতে পারে এমন খেলোয়াড়ই পছন্দ তার। আক্রমণভাগ হোক কিংবা রক্ষণ বল প্লেয়িং প্লেয়ারদের মাঠে নামাতে পছন্দ করেন স্প্যানিশ কোচ। আসন্ন মরশুমেও ৩-৫-২ ছকে দল সাজাতে আগ্রহী জুয়ান, যেখানে রক্ষণভাগের প্লেয়ার দের ভূমিকা থাকবে খেলা তৈরি করার পেছনে। কিন্তু তার এই কোচিং শৈলীর সাথে মানিয়ে উঠতে পারছেন না এটিকে মোহনবাগান এবং ভারতীয় দলের তারকা ডিফেন্ডার সন্দেশ ঝিঙ্গান। ফলে তার ক্লাব ছাড়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

এএফসি কাপের লক্ষ্যে শক্তিশালী দল তৈরী করাই এখন লক্ষ্য এটিকে মোহনবাগান ম্যানেজমেন্টের। কোচের মতামতকে খুবই গুরুত্ব দিচ্ছেন তারা। মার্ক হ্যামিলের পাশাপাশি শেষ পর্যন্ত যদি সন্দেশ ঝিঙ্গান কে না পাওয়া যায় তাহলে আরও একজন সেন্টার ব্যাক লাগতে পারে তাদের। ইতিমধ্যেই বেঙ্গালুরু এফসি থেকে আশিক করণীয় এবং হায়দরাবাদ এফসি থেকে আশীষ রাইয়ের মতো প্লেয়ারদের কোচের কথায় সই করেছে টিম ম্যানেজমেন্ট। আক্রমণভাগ এবং মাঝমাঠ তৈরি। তবে আরো একজন স্ট্রাইকারের আসার অপেক্ষায় রয়েছে তারা। এই মুহূর্তে সন্দেশ ক্লাব ছাড়লে আর ডিফেন্স নিয়ে ভাবতে হবে।

২০১৯ থেকে ২০২০ অবধি টানা এক বছর চোটগ্রস্থ থাকার পর যখন এটিকে মোহনবাগানে
যোগ দিয়েছিলেন সন্দেশ তখন তাকে নিয়ে প্রত্যাশার পারদ তুঙ্গে ছিল। সেই প্রত্যাশা পালনেও যথেষ্ট সক্ষম হয়েছিলেন সন্দেশ। কিন্তু তারপর গত মৌসুমে লনে ক্রোয়েশিয়ার এইচএন কে সিবেনিক ক্লাবে যোগ দিয়েছিলেন ভারতের তারকা ডিফেন্ডার। কিন্তু সেখানেও চোট-আঘাত এবং সুযোগের অভাবে ভুগেছেন। বাধ্য হয়েই আবার এটিকে মোহনবাগানের ফিরে আসেন। কিন্তু ততদিনে কোচ বদল ঘটে গিয়েছে সবুজ-মেরুন শিবিরে। নতুন কোচের স্ট্র্যাটেজিতে মানিয়ে নেওয়া তার পক্ষে কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছে ফলে মরশুম শুরুর আগে যদি সন্তানকে অন্য কোন ক্লাবের জার্সি গায়ে ছাপাতে দেখা যায় তাহলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

Related Articles

Back to top button