টাইমলাইনভারতরাজনীতি

বিজেপির সঙ্গ ছেড়েছি তাতে কি? মোদীই আমাদের নেতা! সঞ্জয় রাউতের বয়ানে জোর জল্পনা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ (Devendra Fadnavis) আর সিবসেনার সাংসদ সঞ্জয় রাউতের (sanjay raut) মধ্যে শনিবার হওয়া গোপন সাক্ষাতের পর মহারাষ্ট্রের রাজনীতিতে শোরগোল পড়েছে। এবার সঞ্জয় রাউত মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন। উনি বলেছেন যে, এই সাক্ষাৎ আগে থেকেই নির্ধারিত ছিল। শিবসেনার মুখপত্র সামনা নিয়ে তিনি ফড়নবিশের সাথে সাক্ষাৎ করেন। এরপর উনি বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদী (narendra modi) প্রধানমন্ত্রী, আর তিনি উদ্ধব ঠাকরে সমেত আমাদের সবারই নেতা।” সঞ্জয় রাউতের এই মন্তব্যের পর জল্পনা শুরু হয়েছে।

জানিয়ে দিই, মহারাষ্ট্রে (Maharashtra) উদ্ধব ঠাকরের নেতৃত্বাধীন তিন দলের মহাবিকাশ জোটের স্থিরতা নিয়ে চর্চার মধ্যে শিবসেনা সাংসদ তথা দলের মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত  বিরোধী নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশের সাথে শনিবার একটি হোটেলে সাক্ষাৎ করলেন। দুই নেতার মধ্যে হওয়া এই সাক্ষাতে রাজ্যের রাজনীতিতে নতুন জল্পনা শুরু হয়েছে।

গতকাল শিবসেনার সাংসদ সঞ্জয় রাউত মুম্বাইয়ের পাঁচতারা হোটেলে মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করেন। এটি একটি গোপন সাক্ষাৎ ছিল বলে জানা যায়। দুই নেতার মধ্যে দুপুর দেড়টা থেকে প্রায় পাঁচটা পর্যন্ত গোপন বৈঠক চলে। শিবসেনা আর বিজেপির নেতাদের কাছে ওএই বৈঠক নিয়ে আগে থেকে কোনও খবর ছিল না।

যদিও, দুই নেতার মধ্যে কি নিয়ে আলোচনা হয়েছে সেটা এখনো সামনে আসেনি। কিন্তু এই সাক্ষাৎ রাজ্যের রাজনীতিতে ভূমিকম্প এনে দিয়েছে। এই সাক্ষাৎ নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাওসাহেব দাবনে বলেন, এই সাক্ষাতের বেশি মানে বের করার কোনও দরকার নেই। কিছুদিন আগে আমিও রাউতের সাথে সাক্ষাৎ করেছিলাম, আর দুজন একসাথে চাও খেয়েছিলাম।

জানিয়ে দিই, ২০১৯ সালে বিধানসভা নির্বাচনের পর বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করে কংগ্রেস-এনসিপির সাথে মিলে মহারাষ্ট্রে সরকার গড়েছিল শিবসেনা। আর এই সরকার গঠনের পিছনে শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউতের বড় ভূমিকা ছিল। যেহেতু সঞ্জয় রাউত শিবসেনার মুখপত্র সামনাত সম্পাদকীয় থেকে বিগত কয়েকদিন ধরেই দেবেন্দ্র ফড়নবিশকে আক্রমণ করে চলেছিলেন। আর এরপর এই গোপন সাক্ষাৎ অনেক গুরুত্বপূর্ণ বলেই মেনে নেওয়া হচ্ছে।

Back to top button