টাইমলাইনটাকা পয়সাপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

CBI-র জেরা এড়ালেন সওকত মোল্লা, তদন্তকারীদের কাছে চাইলেন ১৫ দিনের সময়

বাংলাহান্ট ডেস্ক : শুক্রবার কয়লা পাচার কান্ডে ক্যানিং পূর্বের তৃণমূল বিধায়ক সওকত মোল্লাকে নিজাম প্যালেসে তলব করেছিল সিবিআই। কিন্তু আজ হাজিরা দিতে পারবেন না তিনি, এমনটাই মেল মারফত সিবিআইকে জানালেন সওকত মোল্লা। তিনি না গেলেও তাঁর আইনজীবী এদিন নিজাম প্যালেসে যাবেন বলেও জানিয়েছেন তৃণমূল বিধায়ক।

কয়লা পাচার কাণ্ডে জড়িয়েছে একের পর এক তৃণমূল নেতার নাম। এমনকি এই দূর্নীতি মামলায় নাম জড়ায় তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও। একাধিকবার অভিষেক এবং রুজিরাকে দিল্লিতে তলব করে ইডি। এছাড়াও তলব করা হয়েছে শাসকদলের বহু নেতাকেই। কেউ হাজিরা দিয়েছেন, কেউ আবার এড়িয়ে গেছেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী দলের তলব। এরপর এবার সওকত মোল্লাকে নিজাম প্যালেসে হাজিরার নির্দেশ দেয় সিবিআই। শুক্রবার বেলা ১১ টা নাগাদ নিজাম প্যালেসে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু তা এড়িয়ে গেলেন বিধায়ক।

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে মেল মারফত হাজিরা দিতে না পারার কথা সিবিআইকে জানিয়েছেন সওকত মোল্লা। তিনি জানান, আপাতত রাজনৈতিক এবং প্রশাসনিক কাজে ব্যস্ত রয়েছেন তিনি। ফলে শুধু আজই নয়, আগামী ১৫ দিনও সিবিআই দপ্তরে হাজিরা দেওয়া সম্ভব হবে না তাঁর পক্ষে। এই ১৫ দিনের সময়ও তিনি চেয়ে নিয়েছেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার কাছ থেকে। তবে এদিন বেলা এগারোটায় বিধায়কের আইনজীবী নিজাম প্যালেসে হাজির হয়ে বিধায়কের হাজিরা না দেওয়ার বিস্তারিত কারণ ব্যাখ্যা করবেন সিবিআইকে।

শুধু সিবিআইই নয়, কয়লাপাচার কাণ্ডে তদন্ত করছে ইডিও। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে লাগাতার দিল্লিতে তলবের বিরুদ্ধে সওয়াল করে সুপ্রিমকোর্টে আবেদন জানিয়েছিলেন তাঁরা। দাবি ছিল, জেরা করতে হলে দিল্লি নয়, করা হোক কলকাতাতেই। কয়লাপাচার কাণ্ডের আইনি লড়াইতে জয় পেয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিষেক এবং রুজিরাকে জেরা করতে হলে কলকাতাতেই করতে হবে, গত ১৭ মে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটকে এমনটাই সাফ জানিয়ে দিয়েছে সুপ্রিমকোর্ট। ফলে আপাতত স্বস্তিতে রয়েছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। এদিন তলব এড়ালেও এবার ১৫ দিন পর সিবিআই দপ্তরে দেখা মেলে কি না তৃণমূল বিধায়কের সেটাই দেখার।

Related Articles

Back to top button