টাইমলাইনবিনোদন

বলিউড মাফিয়াদের চাপেই সুশান্তের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙেন সারা! ‘নেপো কিডস’দের বিরুদ্ধে তোপ কঙ্গনার

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুতের (sushant singh rajput) সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন সারা আলি খান (sara ali khan)। কিন্তু ‘সোনচিড়িয়া’ ছবির মুক্তির পরেই দূরে সরে যান তাঁরা। এর পেছনে বলিউড মাফিয়াদের (Bollywood mafia) হাত থাকতে পারে, সম্প্রতি এমনই আশঙ্কা প্রকাশ করলেন সুশান্তের বন্ধু স‍্যামুয়েল হাওকিপ।

নিজের ইনস্টাগ্রাম হ‍্যান্ডেলে তিনি লেখেন, ‘কেদারনাথের প্রোমোশনের কথা মনে আছে আমার। সুশান্ত ও সারা একে অপরের প্রেমে মজে ছিল। ওদের আলাদা করা যেত না। এত পবিত্র ও শিশুর মতো সরল ভালবাসা ছিল। একে অপরের প্রতি এত শ্রদ্ধা ছিল ওদের যা এখনকার সম্পর্কে দেখাই যায় না।’


তিনি আরও লেখেন, ‘সুশান্তের পাশাপাশি তাঁর পরিবার, বন্ধু এমনকি কর্মচারীদের জন‍্য শ্রদ্ধা ছিল সারার। আমার মনে হয় সোনচিড়িয়ার বক্স অফিস কালেকশন দেখার পরই সুশান্তের সঙ্গে সারার বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তের পেছনে নিশ্চয়ই কোনও বলিউড মাফিয়ার হাত রয়েছে।’

অভিনেতার বন্ধুর এই মন্তব‍্যের পরেই তোলপাড় শুরু হয় নেটদুনিয়ায়। এই প্রসঙ্গে মন্তব‍্য করেন কঙ্গনা রানাওয়াতও। টুইটারে তাঁর টিমের হ‍্যান্ডেলে লেখা হয়, ‘আউটডোর শুটিংয়ের সময় একই ঘরেও থাকছিলেন সুশান্ত ও সারা। এই ফ‍্যান্সি নেপোটিজম কিডসরা কেন বহিরাগতদের স্বপ্ন দেখায় আর তারপর প্রকাশ‍্যে ছুঁড়ে ফেলে দেয়? এরপর সুশান্ত যে একটা শকুনের পাল্লায় পড়ে তাতে আশ্চর্যের কিছু নেই।’

শুধু সারা না, রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধেও ফের তোপ দাগেন কঙ্গনা। রিয়া যদি নির্দোষই হবেন তাহলে সুশান্তের মৃত‍্যুর পরেই কেন এত টাকা দিয়ে সতীশ মানশিন্ডের মতো একজন দুঁদে আইনজীবী নিযুক্ত করলেন। প্রতি শুনানিতে সতীশ মানশিন্ডে দশ লক্ষ করে টাকা নেন বলে জানান কঙ্গনা। সলমন খান ও সঞ্জয় দত্তেরও আইনজীবী ছিলেন তিনিই।

Related Articles

Back to top button