টাইমলাইনবিনোদন

হিন্দি-তেলুগু ইন্ডাস্ট্রি থেকে কাজের ডাক, শাশ্বতর আফশোস, বাবা দেখে যেতে পারলেন না

বাংলাহান্ট ডেস্ক: পাত্রের আকার অনুযায়ী জলের আকার বদলায়। অভিনেতা শাশ্বত চট্টোপাধ‍্যায় (Saswata Chatterjee) অনেকটা তেমনি। যেকোনো চরিত্রেই মানিয়ে যায় তাঁকে। সব ধরনের ছবিতে নিজের অভিনয় প্রতিভার পরিচয় দেন শাশ্বত। আগামীতে ফের গোয়েন্দা শবর হয়ে ফিরছেন তিনি। ছবির নাম ‘তীরন্দাজ শবর’।

প্রায় ২৫ বছর হয়ে গিয়েছে অভিনয়ে পা রেখেছেন শাশ্বত। দীর্ঘ অভিনয় কেরিয়ারে একাধিক গোয়েন্দা ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। ফেলুদা, ব‍্যোমকেশ দুই গোয়েন্দা গল্পেই দেখা গিয়েছে তাঁকে। তবে সত‍্যান্বেষী হওয়ার সুযোগ পাননি কখনো। তোপসে আর অজিত হয়েই খুশি থাকতে হয়েছে। শবর তাঁর প্রথম গোয়েন্দা চরিত্র। তিন তিনটি ছবি প্রতিটাই হিট।


সংবাদ প্রতিদিনের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে শাশ্বত জানান, নিজেকে নিয়ে বেশি একটা ভাবেন না তিনি। যা পেয়েছেন তা বরং বোনাস। তোপসের পরে অজিত, আর এখন শবরের চরিত্র। শাশ্বতর কাছে এটা মাধ‍্যমিকের পর উচ্চমাধ‍্যমিক, তারপর কলেজের গণ্ডি পেরোনোর মতো। তবে একটাই আফশোস রয়ে গিয়েছে অভিনেতার। ছেলের এত কাজ বাবা দেখে যেতে পারলেন না।

শুধু তো বাংলা ছবি নয়, বলিউডে প্রায়ই কাজ করছেন শাশ্বত। এমনকি দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রি থেকেও ডাক আসছে তাঁর। এই সময় গুলোতেই বাবার কথা আরো বেশি করে মনে পড়ে অভিনেতার। আগে সিরিয়ালের অভিনেতারা বড়পর্দায় সুযোগ পেতেন না। তাই শাশ্বতর বাবাও ভাবেননি যে ছেলে একদিন সিনেমা করবে।

শাশ্বত আরো জানান, এমনিতেই চাহিদা তাঁর খুব কম। তবে ২০১২-১৩ থেকে খুবই ভাল সময় শুরু হয়েছে। এমন সব জায়গা থেকেও ছবির প্রস্তাব আসছে যেখানে কখনো ভাবেনইনি। তবে একটা সময় এমন এসেছিল যখন শাশ্বতর মতো অভিনেতারও কাজের আকাল হয়েছিল।

‘বাক্সরহস‍্য’ ছবিতে অভিনয় করার পর দেড় বছর কোনো কাজ ছিল না তাঁর কাছে। সাকুল‍্যে মাত্র ১৬ দিন কাজ করেছিলেন তিনি। কিন্তু কোনো দোষ না থাকা সত্ত্বেও ওই কঠিন সময়টা কেন এসেছিল তা আজও বুঝে উঠতে পারেননি শাশ্বত।

Related Articles

Back to top button