টাইমলাইনবিধানসভা নির্বাচনবিনোদনরাজনীতি

কথা ছিল প্রার্থী হওয়ার, বিতর্কিত ভিডিওর জেরেই মিলল না টিকিট! মুখ খুললেন সৌরভ দাস

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বিধানসভা নির্বাচনের (election) আগে তৃণমূলে (tmc) যোগদান করেছিলেন অভিনেতা সৌরভ দাস (saurav das)। যোগ দেওয়ার পরেই বিতর্কে জড়ান তিনি। নিজের বোনের সঙ্গে অশ্লীল আচরণ করার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরূদ্ধে। টিকিট পাননি সৌরভ। অবশেষে এই বিষয়ে মুখ খুললেন অভিনেতা।

সংবাদ মাধ‍্যমের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে সৌরভ জানান, এই বিতর্কের জেরে ভেঙে পড়েছেন তিনি। পারিবারিক ট্রমাও এতটাই যে তাঁর বাবাকে কয়েকদিন আগে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে। বিতর্কের পর নিজের ফোনও সুইচ অফ করে রেখেছিলেন সৌরভ। সহকারীর ফোন থেকেই সকলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিলেন তিনি।


তারপর মায়ের কথাতেই গোটা ভিডিওটা পোস্ট করে সাফাই দিয়েছিলেন সৌরভ। কিন্তু তাতেও ট্রোল বন্ধ হয়নি। তাঁর নাকি প্রার্থী হওয়ার কথাও ছিল নির্বাচনে। কিন্তু এই বিতর্কের জন‍্য বাধ‍্য হয়ে তিনি দলকে অনুরোধ করেন যাতে তাঁকে প্রার্থী না করা হয়। তবে অভিনেতা জানান, রাজ চক্রবর্তীর সঙ্গে ব‍্যারাকপুরে প্রচারে অংশ নেবেন তিনি। মানুষের জন‍্য কাজ করতে প্রার্থী হওয়ার দরকার পড়ে না বলেও জানান সৌরভ।

এর আগে সৌরভের বিশেষ বান্ধবী অনিন্দিতা জানিয়েছিলেন, এই ঘটনাটা যখন ঘটেছে তখন তিনি ঔরঙ্গাবাদে ছিলেন। সৌরভের সঙ্গে জড়িয়ে তাঁকেও ট্রোল করা হয়। সৌরভ এই ঘটনায় একেবারেই ভেঙে পড়েছেন বলে জানান অনিন্দিতা। সন্তান স্নেহে ছোট বোনকে বড় করেছেন সৌরভ। তাই এমন ট্রোল, কুমন্তব‍্য সহ‍্য করতে পারেননি তিনি। অনিন্দিতা আরো জানান, ধীরে ধীরে কাজের মধ‍্যে থেকে স্বাভাবিক হচ্ছেন তাঁরা।

প্রসঙ্গত, মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ‍্যায়ের হাত ধরে তৃণমূলে যোগ দেন সৌরভ। অভিনেতা জানান, মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ই তাঁর কাছে সবথেকে বড় অনুপ্রেরণা। তৃণমূলে যোগ দিয়ে মানুষের জন‍্য কাজ করতে চান তিনি। ‘জয় বাংলা’ স্লোগানও সবার চেয়ে জোর গলায়ই বলবেন তিনি।

Back to top button