টাইমলাইনবিধানসভা নির্বাচনবিনোদনরাজনীতি

সদ‍্য যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে, আসন্ন নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা রাজ-সায়নীর!

বাংলাহান্ট ডেস্ক: আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের (election) আগে একাধিক টলিউড (tollywood) তারকা যোগ দিয়েছেন রাজনীতিতে। তৃণমূল (tmc) বিজেপি দুই দলেই ঘটেছে তারকা সমাবেশ। রুদ্রনীল ঘোষ, হিরণ চট্টোপাধ‍্যায়, যশ দাশগুপ্ত, পায়েল সরকাররা যেমন গিয়েছেন বিজেপিতে। তেমনি তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন কৌশানি মুখার্জি, রাজ চক্রবর্তী (raj chakraborty), সায়নী ঘোষ (sayani ghosh) সহ আরো অনেকেই।

এমন অবস্থায় স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন জাগছে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে এই তারকাদের মধ‍্যে কতজনকে প্রার্থী করবে দুই দল? বিজেপিতে যোগদান করেই ইতিমধ‍্যে প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন পায়েল। ইচ্ছা রয়েছে রুদ্রনীলেরও। তবে দুজনেরই বক্তব‍্য এক্ষেত্রে দলের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। অপরদিকে তৃণমূলের অন্দরে শোনা যাচ্ছে সদ‍্য দলে যোগ দেওয়া রাজ, সায়নীদের প্রার্থী করা হতে পারে আসন্ন নির্বাচনে‌।


অতি সম্প্রতি মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ের সভায় তৃণমূলে যোগ দিয়ে হাতে দলীয় পতাকা তুলে নিয়েছেন রাজ চক্রবর্তী, সায়নী ঘোষ, জুন মালিয়া, মানালি দে, কাঞ্চন মল্লিক, সুদেষ্ণা রায়রা। সংবাদ মাধ‍্যম সূত্রে খবর, এবার বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থী হিসাবে দেখা যেতে পারে সায়নী ঘোষ, রাজ চক্রবর্তী, সুদেষ্ণা রায়কে।

এর আগে দলের হয়ে প্রার্থী হওয়ার ব‍্যাপারে সদ‍্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া রুদ্রনীল জানিয়েছিলেন, যদি দল থেকে তাঁকে সুযোগ দেওয়া হয় তবে অবশ‍্যই তিনি ভোটে দাঁড়াবেন। আর দাঁড়ালে তাঁর ইচ্ছা নিজের জন্মস্থান হাওড়া থেকেই দাঁড়াবার। সম্প্রতি গুঞ্জন ওঠে হাওড়ার শিবপুর থেকে নকি ভোটে দাঁড়াতে চলেছেন তিনি। রুদ্রনীল এই প্রসঙ্গে জানান তিনি হাওড়ার ছেলে বলেই এমন খবর চাউর হয়েছে।

তবে রুদ্রর সাফ কথা, পুরোটাই নির্ভর করছে দলের সিদ্ধান্তের উপর। কারণ বিজেপি কর্মী নির্ভর পার্টি। যদি দল তাঁকে ভরসা করে তাহলে হাওড়া থেকেই ভোটে দাঁড়াবেন তিনি। নাহলে যেমন জেলায় জেলায় কাজ করছেন তেমনি করবেন। রুদ্রনীলের কথায়, “ব‍্যক্তিগত ইচ্ছার স্থান দলীয় সিদ্ধান্তের অনেক পরে”।

সদ‍্য রাজনীতিতে যোগ দিয়েই প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন পায়েল সরকারও। তাঁর কথায়, প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা অবশ‍্যই রয়েছে। তবে পরক্ষণেই একটু সামলে বলেন, এ বিষয়ে এখনো ভাবেননি। দলের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত।

Back to top button