টাইমলাইনবিনোদন

মেপে মেপে এক কাপ ভাত, চিনি ছাড়া ডায়েট! চাবুক ফিগার ধরে রাখতে কঠোর নিয়ম মেনে চলেন ঊষসী

বাংলাহান্ট ডেস্ক: তিনি একাধারে বকুল, একাধারে কাদম্বিনী। একই অঙ্গে নানান রূপ। তিনি ঊষসী রায় (Ushashi Ray)। বাংলা টেলিভিশন জগতের জনপ্রিয়তম অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন। ছোটপর্দা থেকে বেরিয়ে পা রেখেছেন ওয়েব সিরিজে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও তাঁর বেশ দহরম মহরম। ঊষসী যাকে বলে রূপে লক্ষ্মী গুণে সরস্বতী।

বকুল কথা বা কাদম্বিনী সিরিয়ালের পর অনেকটা পরিবর্তন হয়েছে ঊষসীর। আগের থেকে আরো বেশি স্লিম হয়ে গিয়েছেন তিনি। অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে উঁকি দিলেই চোখে পড়বে শরীরচর্চার ছবি, ভিডিও। কঠোর পরিশ্রম করে বাড়তি মেদ ঝরাচ্ছেন ঊষসী। সঙ্গে চলছে কড়া ডায়েটিংও।


অতি সম্প্রতি গিয়েছে বিশ্ব যোগ দিবস। সেদিনও যোগাসন করার ছবি শেয়ার করেছিলেন ঊষসী। সাদা টিশার্ট এবং কালো যোগা প্যান্ট পরে শরীরচর্চা করতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। অভিনেত্রীর কমনীয় ফিগার ঈর্ষার কারণ অনেকেরই। এমন তন্বী ফিগারের রহস্য কী? কী কী থাকে ঊষসীর ডায়েটে?

সম্প্রতি এক সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে নিজের সারাদিনের খাবার দাবারের লিস্টি শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী। সকালে তাঁর দিন শুরু হয় এক বাটি দুধ ও কর্নফ্লেক্স দিয়ে। কিন্তু তাতে চিনি থাকে না। একটু বেলায় একটি ফল খেয়ে তিনি যান জিমে। সেখান থেকে ফিরে শুধু খান অলিভ অয়েলে ভাজা ডিমের সাদা অংশ। দুপুরে অবশ্য মাছে ভাতে বাঙালি ঊষসী। এক কাপ ভাত, ডাল, তরকারি, মাছ কিংবা মাংসে মধ্যাহ্নভোজ সারেন তিনি।

বিকেলের জন্য বরাদ্দ টক দই, লিকার চা। তবে সবই চিনি ছাড়া। কখনো কখনো ঘিয়ে ভাজা কুড়মুড়ে মাখনাতেও কামড় বসান ঊষসী। রাতে ভাত বাদ। পালং শাক এবং বিভিন্ন সবজি দিয়ে তৈরি চিলার সঙ্গে তরকারি দিয়ে রাতের খাবার সেরে ফেলেন অভিনেত্রী।

পাশাপাশি নিয়মিত শরীরচর্চা, যোগাসন তো রয়েছেই। তবে এত কড়া ডায়েট, চিনি ছাড়া খাবার খাওয়া সত্ত্বেও মিষ্টি কিন্তু বাদ দিতে পারেন না ঊষসী। জিলিপি, রাবড়ি, চিজ কেক, ব্রাউনির মতো সুস্বাদু ডেজার্ট দেখে লোভ সম্বরণ করতে পারেন না ঊষসীও।

Related Articles

Back to top button