fbpx
টাইমলাইনবিনোদন

বালার ভূমিকায় শিখর ধাওয়ান!

বাংলা হান্ট ডেস্ক: হাউসফুল ৪ সিনেমার গান ‘বালা’ এখন ট্রেন্ডে পরিণত হয়েছে। এই গান ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে অনেক। কমবয়সী ছেলেমেয়েদের মুখে মুখে ফিরছে অক্ষয় কুমারের অভিনীত সিনেমার এই গান।সিনেমায় অক্ষয় এর মাথায় টাক। ঠোঁটের উপর পেল্লাই গোঁফ। কানে দুল। গলায় হার। বালারূপী অক্ষয়ের এই লুকস ইতিমধ্যে ঝড় তুলেছে। একদল মহিলার মাঝে নাচতে নাচতে অক্ষয় কুমার-এর Swag যেন নতুন মাত্রা পেয়েছে। আর এখন সেই গানের যাদু এবার ভারতীয় দলের ড্রেসিংরুমে। বালা-র লুকসের সঙ্গে খানিকটা মিল রয়েছে ক্রিকেটার শিখর ধাওয়ানের। তিনিও কখনও ছোট করে চুল ছাঁটেন। কখনও আবার একেবারে কামিয়ে নেন মাথার চুল। গোঁফ রাখার শখ তাঁর অনেকদিনের। ফলে ভারতীয় দলের অন্য ক্রিকেটাররা অক্ষয়কে হাতের সামনে না পেয়ে গব্বরকেই কল্পনা করে ফেলেছেন বালা হিসাবে। গব্বর-এর অভিনয় দক্ষতা নিয়েও নতুন করে প্রশ্ন করার নেই। এর আগে ড্রেসিংরুমে মজা করে তিনি একাধিকবার নানানরকম অভিনয় করেছেন। এবারও বালা-র ভূমিকায় অভিনয় করে জমিয়ে দিয়েছেন টিম ইন্ডিয়া-র ওপেনার।

শিখর ধাওয়ানকে সঙ্গ দিয়েছেন আরও দুজন। খলিল আহমেদ ও য়ুজবেন্দ্র চাহাল। হাউসফুল ৪ সিনেমার একটি দৃশ্য নতুন করে অভিনয় করছিলেন শিখর। খলিল তাঁকে পাশ থেকে প্রশ্ন করছিলেন, ‘রোহিত ভাই তোমায় একজোড়া গ্লাভস রাখতে দিয়েছিল। ওটা তুমি কোথায় রেখেছ!’ আর প্রায় সঙ্গে সঙ্গে অদ্ভুত ভঙ্গিতে মাথা ঘুরিয়ে সব কিছু ভুলে যাওয়ার অভিনয় করছেন গব্বর। হাউসফুল ৪ সিনেমায় বালারও এমনই সব কিছু ভুলে যাওয়ার ব্যামো আছে। আর তাঁর সেই ভুলে যাওয়ার রোগের নকল করে অভিনয় করাই ছিল শিখরের উদ্দেশ্য। দারুনভাবে বালা-র অভিনীত সেই দৃশ্য ফুটিয়ে তুললেন শিখর। আর গোটা অভিনয় প্রক্রিয়ায় চাহাল ও খলিল তাঁকে যোগ্য সঙ্গ দিলেন। সব শেষে নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডল এ শিখর লিখলেন ‘ বালা কে সাইড এফেক্টস’।

Leave a Reply

Close
Close