টাইমলাইনবিনোদন

‘জবা’রও এক কাঠি উপরে, মিঠাইয়ের গোপালের দেওয়া সংকেত দেখে বোমা নিষ্ক্রিয় করল সিড!

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সিরিয়ালের (Serial) গল্পের অনেক বদনাম রয়েছে। এখানে নাকি সবেতেই অতি নাটকীয়তা। সিরিয়ালের দুনিয়ায় সেইসব কিছুই হয় যা বাস্তবে হয় না। এখানে কাঁচি দিয়ে আন্দাজে তার কেটেই বোমা নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া যায়, যে কাজের জন্য রীতিমতো জনপ্রিয় ‘জবা’। তবে সম্প্রতি তার প্রতিদ্বন্দ্বী এসে গিয়েছে বলে দাবি করছেন দর্শকরা। আর সেই প্রতিদ্বন্দ্বী হল সিদ্ধার্থ (Siddharth)।

হ্যাঁ, জি বাংলার জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘মিঠাই’য়ের (Mithai) সিডি বয়ের কথাই বলা হচ্ছে। কিছুদিন আগেই প্রোমোতে দেখা গিয়েছিল কাঁচি দিয়ে তার কেটে বোমা নিষ্ক্রিয় করার চেষ্টা করছে সিড। তাকে ঘিরে দাঁড়িয়ে রয়েছে মিঠাই সহ মোদক পরিবারের বাকিরা।


আসলে খলনায়ক ওমি আগরওয়ালের ষড়যন্ত্রে ভয়ঙ্কর বিপদের মধ্যে রয়েছে গোটা মোদক পরিবার। সিডের থেকে প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য মনোহরার মধ্যে টাইম বোমা ফিট করে রেখেছে ওমি। বাইরে থেকে মোদক পরিবারের প্রায় সব সদস্যকে আটকে রেখে ক্যামেরায় তাদের উপরে নজরদারি চালাচ্ছে ওমি।

বোমা রাখা হয়েছে জানতে পেরেই গোটা বাড়ি তন্ন তন্ন করে খুঁজতে শুরু করে সিড সব অন্যান্যরা। আর রাতুল বাইরের থেকে শ্বশুরবাড়ির সবাইকে বাঁচানোর চেষ্টা করতে থাকে। রুদ্রর নির্দেশে মনোহরায় পৌঁছায় স্পেশ্যাল অফিসার সহ বম্ব স্কোয়াডের লোক। তিনি বাইরে থেকে সিড মিঠাইদের নির্দেশ দিতে থাকেন কীভাবে খুঁজতে হবে। আর অন্যদিকে রাতুল পুলিসের তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে ওমির আইপি অ্যাড্রেস ট্র্যাক করার চেষ্টা চালাতে থাকে।

রুদ্রর পরামর্শে বাপের বাড়ি থেকে ওমির বোন পিঙ্কিকেও নিয়ে আসে রাতুল, যাতে ওমি মানসিক চাপে পড়ে। কাজও হয় তাতে। অন্যদিকে খুঁজতে খুঁজতে শেষমেষ ওমিকে হাতেনাতে ধরে পুলিস। আর শেষ মুহূর্তে বোমাটাও খুঁজে পায় মিঠাই। কিন্তু বন্ধ দরজা দিয়ে বম্ব স্কোয়াডের লোক তো ভেতরে ঢুকতে পারবে না। তাই সিডকেই নিষ্ক্রিয় করতে হয় বোমাটা।

আজকের পর্বের আগাম ঝলকে দেখা গিয়েছে, মিঠাই গোপালকে একটা সংকেত দেওয়ার জন্য বলে। আর তখনি গোপালের সিংহাসন থেকে গড়িয়ে পড়ে একটি লাল গাঁদা ফুল। মিঠাই বলে ওঠে, লাল তারটা কাটতে হবে। এই নিয়ে নিন্দুকরা কটাক্ষ করেছেন, জবার থেকেও এগিয়ে রয়েছে উচ্ছেবাবু। আগামী পর্বের ঝলক বলছে, শেষমেষ মারা যাবে ওমি আগরওয়াল। বেঁচে যাবে মনোহরা। আর এর সঙ্গে সঙ্গেই ওমির কাহিনি শেষ হবে মিঠাই থেকে।

Related Articles