fbpx
টাইমলাইনবিনোদন

নেপোটিজম নিয়ে অনন্যা পাণ্ডেকে তোপ সিদ্ধান্তের, প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: নেপোটিজম কথাটার সঙ্গে এখন আর কেউই বিশেষ অপরিচিত নন। কঙ্গনা রানাওয়াতের দৌলতে নেপোটিজমের সঙ্গে বেশ ভালভাবেই পরিচিত হয়েছেন মানুষ। তিনিই প্রথম সোচ্চার হন এর বিরুদ্ধে। তাঁর দেখাদেখি অনেকেই এরপর সরব হয়েছেন এই পক্ষপাতের বিরুদ্ধে। তারকা সন্তানদেরও তাই প্রায়ই নানা সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয়। বাদ যাননি অনন্যা পাণ্ডেও। বাবা চাঙ্কি পাণ্ডের দৌলতে যে তিনি বলিউডে সুযোগ পেয়েছেন সেকথা আগেও বহুবার শুনতে হয়েছে তাঁকে। অবশেষে এই নিয়ে মুখ খুললেন তিনি।

সম্প্রতি একটি জনপ্রিয় সংবাদ চ্যানেলের সাক্ষাৎাকারে উপস্থিত ছিলেন অনন্যা পাণ্ডে, সিদ্ধান্ত চতুর্বেদী, তারা সুতারিয়া সহ আরও বেশ কিছু চেনা পরিচিত মুখ। সেখানেই অনন্যা জানান, তাঁর বাবার জন্য বহুবার নেপোটিজম নিয়ে সমালোচনা শুনতে হয়েছে তাঁকে। অভিনেত্রীর কথায়, ‘সবাই ভাবেন আমাদের জীবনটা খুব সহজ। কিন্তু যখন আমাকে সবাই নেপোটিজম নিয়ে আঘাত করেন তখন খারাপ লাগে। তবে আমি এই বিষয়টা থেকে কখনওই পালাবো না। আমি চাঙ্কি পাণ্ডের কন্যা। তার জন্য আমি গর্বিত।’

অনন্যা আরও জানান, যখন তাঁর প্রথম ছবি ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার টু’ এর মুক্তি পিছিয়ে যায় তখন তাঁর বাবা তাঁকে একবারও শুভেচ্ছাও জানাননি। তিনি তাঁর বাবাকে দেখেছেন অনেক কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে তাই তিনি কোনও কিছুই হালকা ভাবে নেন না।

এরপরেই আসরে নামেন ‘গলি বয়’ খ্যাত সিদ্ধান্ত চতুর্বেদী। অনন্যার কথার রেশ টেনে তিনি বলেন, ‘সবারই নিজের নিজের স্ট্রাগল থাকে। কিন্তু যেখানে আমাদের স্বপ্ন পূরণ হয় সেখান থেকে এদের স্ট্রাগল শুরু হয়।’ সিদ্ধান্তের এই চাঁচাছোলা কথাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন নেটিজেনরা। তাঁদের মতে, খুব সোজা ভাষায় বলিউডের এই নেপোটিজম সমস্যাকে তুলে ধরেছেন তিনি।

Back to top button
Close
Close