fbpx
টাইমলাইনভারত

ভারতের গর্জনে কাঁপবে চীন, জুলাইয়েই ভারতে আসতে চলেছে ছয়টি অত্যাধুনিক রাফাল বিমান

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ভারত (India) আর চীনের (China) মধ্যে চলা সীমান্ত বিবাদের মধ্যে ফ্রান্স থেকে ছয়টি রাফাল (Rafale) বিমান ২৭ জুলাই ভারতে আসতে চলেছে। এই বিমান গুলো মে মাসে পৌঁছানর কথা ছিল, কিন্তু করোনার কারণে মে মাসে ভারতে বিমান পাঠানো সম্ভব হয়নি। সুত্র থেকে জানা যায় যে, ফ্রান্সের থেকে উড়ে রাফাল বিমান একেবারে ভারতের আম্বালা বিমান বন্দরে অবতরণ করবে। প্রথমে চারটি রাফাল বিমান আসার কথা ছিল, কিন্তু এবার জানা যাচ্ছে যে ছয়টি বিমান ভারতে আসছে।

এই মুহূর্তে এই খবর খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ, লাদাখ সীমান্তে ভারত আর চীনের মধ্যে এখন চরম উত্তেজনা চলছে। দুই দেশর সেনাই একে অপরের সামনা সামনি আর ভারত পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছে যে চীনের কোনরকম দুঃসাহস বরদাস্ত করা হবে না। আর এই পরিস্থিতিতে এখন যদি ভারতের হাতে রাফাল বিমান চলে আসে, তাহলে ভারতের শক্তি কয়েকগুণ বেড়ে যাবে।

আরেকদিকে, আমেরিকাও ভারতকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভারতে হাতিয়ার পাঠানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। আর রাশিয়াও ভারতকে অত্যাধুনিক হাতিয়ার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। আপনাদের জানিয়ে দিই রাশিয়া ১ বিলিয়ন ডলারের (প্রায় ৭ হাজার ৫৬০ কোটি টাকা) হাতিয়ার সাপ্লাই করতে চলেছে।

লাদাখের পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে কেন্দ্র সরকার অনেক আগেই সেনাকে চীনের দুঃসাহসের জবাব দিতে পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছে। এছাড়াও সেনার জন্য তৎকালীন ৫০০ কোটি টাকার ফান্ড জারি করেছে সরকার। ফ্রান্স থেকে অত্যাধুনিক ফাইটার জেট রাফাল বিমানের প্রথম খেপ ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে ভারতে পাঠিয়ে দেবে। আর এই লড়াকু বিমানকে চালানোর জন্য ভারতীয় পাইলটদের ট্রেনিংও দেওয়া হচ্ছে।

আরেকদিকে, কার্গিল যুদ্ধে ভারতের সাহায্য করা ইজরায়েলও চীনের সাথে চলা ভারতের উত্তেজনার কথা মাথায় রেখে ক্ষেপণাস্ত্র দেওয়ার কথা বলেছে। শোনা যাচ্ছে যে, ইজরায়েলের এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম জার এখনো নাম নির্ধারণ করা হয়নি সেটিকে খুব শীঘ্রই সীমান্ত রক্ষার জন্য ভারতে পাঠানো হবে। উল্লেখ্য, সীমান্তে S-400 এয়ার ডিফেন্স মোতায়েন করেছে চীন। আর ভারতও চীনকে জবাব দিতে সীমান্তে উন্নত এয়ার ডিফেন্স মোতায়েন করতে চলেছে।

Back to top button
Close
Close