টাইমলাইনবিনোদন

অনলাইন ক্লাসের জন‍্য হাঁটা মাইলের পর মাইল, প্রত‍্যেক পড়ুয়ার জন‍্য স্মার্টফোনের ব‍্যবস্থা করলেন সোনু!

বাংলাহান্ট ডেস্ক: একের পর এক মানবিকতার নিদর্শন দিয়ে দেশবাসীর মন জয় করে নিচ্ছেন সোনু সূদ (sonu sood)। শুরুটা করেছিলেন লকডাউনে পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরানোর মধ‍্য দিয়ে। লকডাউন উঠে গেলেও মানুষের সাহায‍্য করা থামাননি তিনি। এবার অনলাইন ক্লাসের জন‍্য গ্রামের প্রত‍্যেক পড়ুয়ার হাতে স্মার্টফোন (smartphone) তুলে দিয়েছেন সোনু।

হরিয়ানার প্রত‍্যন্ত গ্রাম মোরনি। গ্রামে নেটওয়ার্কের অবস্থা তো খুবই খারাপ। উপরন্তু বেশির ভাগ মানুষেল কাছেই নেই স্মার্টফোন। তাই পড়ুয়ারা বাধ‍্য হয়ে মাইলের পর মাইল হেঁটে গ্রামের বাইরে অন‍্যের স্মার্টফোন নিতে যায়, যাতে অনলাইন ক্লাসগুলি করা যায়।

এক সাংবাদিকের লেখা প্রতিবেদন থেকে এতটাই জেনেছিলেন সোনু সূদ। মাত্র একদিন আগে বলেছিলেন কালকেই প্রত‍্যেক পড়ুয়া তাদের হাতে পেয়ে যাবে স্মার্টফোন। কথার খেলাপ হয়নি। বুধবারই মোরনি অঞ্চলের কোটির গভর্নমেন্ট সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা হাতে পায় তাদের স্মার্টফোনগুলি।

সোনুর বন্ধু করন গিলহোত্রা স্কুলের প্রিন্সিপালের হাতে তুলে দেন স্মার্টফোনগুলি। সেই ফোনেই উচ্ছ্বসিত পড়ুয়াদের সঙ্গে ভিডিও কলে কথাও বলেন অভিনেতা। নিজেই রিটুইট করে সেই ভিডিও শেয়ার করেছেন সোনু।

এর আগে লকডাউনে ভাইরাল হওয়া লাঠি খেলায় পারদর্শী আজি মাকে দেওয়া কথা মতো নিজের একটি স্কুল খুলে দেন সোনু। সেখানে শিশুদের ও মহিলাদের আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণ দেবেন তিনি।

গণেশ চতুর্থীর শুভ তিথি উপলক্ষে আজি মার এই নতুন স্কুলের উদ্বোধন হয়। সোনুর প্রতি কৃতজ্ঞতায় তাঁর নামেই এই স্কুলের নামকরণ করেন আজি মা।  অভিনেতার এই উপকারে তিনি অত‍্যন্ত খুশি। তাঁর কথায়, “লকডাউনে পরিবারের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার জন‍্য রাস্তায় নেমে লাঠি খেলা দেখাচ্ছিলাম। আমার ছেলে সোনু সূদ আমাকে স্কুল খুলে দিয়েছে।”
স্কুল খোলার খবর পেয়ে আপ্লুত সোনু জানান খুব শীঘ্রই তাঁর স্কুল দেখতে যাবেন তিনি।

Back to top button