fbpx
টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

অন্য রাজ্যে কাজ করতে যাওয়া বাংলার শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনার জন্য বড়সড় ঘোষণা করলেন সৌমিত্র খাঁ

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনা (COVID-19) পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে সমস্ত দেশ তৎপর হয়ে উঠেছে। দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছে এই মারণরোগ। বাংলায়ও এই রোগ বিস্তার লাভ করেছে। এই পরিস্থিতিতে দেশে লকডাউন জারি করা হয়েছে। এই সময় মানুষ অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বেরোচ্ছেন না। এই সময় যানবাহান সমস্তই বন্ধ। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে প্রচুর মানুষ বিভিন্ন রাজ্যে আটকা পড়ে আছেন। কেউ বা কাজের প্রয়োজনে আবার কেউ বা চিকিৎসা সংক্রান্ত বিষয়ে আটকে গেছেন। সেই সমস্ত মানুষ চাইছেন এখন ঘরে ফিরতে।

দিল্লীতে আনন্দ বিহারে হাজার হাজার মানুষ বাড়ি ফেরার জন্য যেভাবে ভিড় করেছিল, তা দেশজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছিল। তাঁদের কাছে বাড়ি ফেরার বা খাওয়ার জন্য কোন টাকাই ছিল না। সরকারের তরফ থেকে সাহায্য চেয়েছিল বাড়ি ফেরার জন্য। সরকার তাঁদের বাড়ি ফেরার জন্য বাসের ব্যবস্তাহ করে দেয়।

এবার পশ্চিমবঙ্গেরও বেশ কিছু মানুষ আছেন যারা ভিন রাজ্যে আটকে রয়েছেন কাজের জন্য। কিন্তু তাঁরা এখন কোন ভাবেই বাড়ি ফিরতে পারছেনা না। তাই বিজেপি বাহিনী চাইছে তাঁদের এখন এই সংকটের পরিস্থিতিতে বাড়ি ফিরিয়ে আনতে। সেই কারণে বিষ্ণুপুর লোকসভার বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ (Saumitra Khan) ফেসবুক লাইভে বলেন, ‘এটা কোন রাজনীতি নয়। কারণ মমতা ব্যানার্জি বাংলায় কোন কাজ না করেই তাঁর নাম প্রচার কররা জন্য রাস্তায় গাড়ি ছোটাচ্ছেন। এই সময় বাঁকুড়া জেলা এবং বিশেষত বিষুপুর লোকসভা এলাকার যেসমস্ত মানুষ রাজ্যের বাইরে আটকে পড়েছেন, তাঁরা বাড়ি ফেরার জন্য আমরা সঙ্গে যোগাযোগ করুন। আমার হোয়াটস আপ নম্বর হল ৯৮৩৬০৯৩১০০। এই নম্বরে আপনাদের ঠিকানাসহ আমাকে ম্যাসেজ করুন। তাহলে ভারত সরকারের তরফ থেকে আমরা আপনাদের ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করব।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিরোধীরা বারবার আমার এই লাইভ কেটে দিচ্ছেন। তাও আমি বারবার ফেসবুক লাইভে এসে আপনাদের সাহায্য করব। তবে মমতা ব্যানার্জি যেভাবে এই সময় অভিনয় করে চলেছেন, তা আপনাদের বলতে নয়, আপনাদের সাহায্যের জন্য আমি আগামিকাল ফের লাইভে আসব। আগামী ১ তারিখে সবাই রেশন দোকানে যাবেন। নয়ত মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee) আবার চাল কেলেঙ্কারি করবেন। তিনি বলেছিলেন, ৭ কোটি ৮০ লক্ষ মানুষকে বিনামূল্যে চাল দেবেন। কিন্তু শুধুমাত্র দক্ষিণ কলকাতার কয়েকটি জায়গা ছাড়া, আর কোন জায়গার মানুষ কিন্তু কোন রকম কিছু পায়নি’।

মমতা ব্যানার্জির উপর তাঁর সমস্ত ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন, ‘একদম তৃণমূলের কাউকে চুরি করতে দেবেন না। আমাদের বিজেপিতে একটাও চুরি করা পয়সা নেই। সরকারী চালগুলো কিন্তু সরাসরি তৃণমূলের পার্টি অফিসে চলে যায়। সেই চাল তাঁরা বিলি করেন। তাই জনসাধারণকে বলব, এই দুর্নীতি মুক্ত বাংলা গড়তে এই মমতা ব্যানার্জির অভিনয়কে একদম বিশ্বাস করবেন না। জনগণকে বলব আপনারা নরেন্দ্র মোদীর উপর ভরসা রাখুন’।

Back to top button
Close
Close