টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

বিরাটের পর কী সৌরভের পালা? BCCI পদ থেকে সরতে পারেন মহারাজ! শীঘ্রই নেওয়া হবে সিদ্ধান্ত

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি এবার ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের সভাপতির পদ থেকে সরে যেতে পারেন। তিনি ছাড়াও, বোর্ড সচিব জয় শাহের ৩ বছরের মেয়াদ অক্টোবর ২০২২-এ শেষ হবে। এমন অবস্থায়, এই দুজনের জায়গায় বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান ও সেক্রেটারি আনা হয় নাকি গাঙ্গুলি এবং শাহই পুনরায় দায়িত্ব পান সেটাই দেখার বিষয়। গাঙ্গুলিকে অক্টোবর ২০১৯ সালে বিসিসিআই-এর সভাপতি করা হয়েছিল, যার আগে তিনি সিএবি প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

সৌরভ গাঙ্গুলি ২০১৫ সাল থেকে বাংলা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সাথে যুক্ত ছিলেন। তার ৪ বছর পরে তাকে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ক্রিকেট বোর্ড, বিসিসিআই-এর সভাপতি করা হয়েছিল। স্পোর্টস টকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের অক্টোবরে তার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা। এমতাবস্থায় তাকেও অব্যাহতি দেওয়া হতে পারে এবং বোর্ড ফের নতুন চেয়ারম্যান পেতে পারে। তাঁর বোর্ড সভাপতির থাকাকালীন দ্বিপাক্ষিক সিরিজেগুলিতে অভাবনীয় সাফল্য পেয়েছে ভারত।

সৌরভের বড় সাফল্যগুলির পেছনে অবদান রয়েছে রাহুল দ্রাবিড়েরও। রাহুল দ্রাবিড় ব্যাঙ্গালোরে জাতীয় ক্রিকেট একাডেমির (এনসিএ) প্রধান হিসাবে কাজ করছিলেন, যার পরে গাঙ্গুলি তাকে ভারতীয় দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব নিতে রাজি করান। শুধু তাই নয়, সৌরভের আর আও সতীর্থ প্রাক্তন অভিজ্ঞ মিডল অর্ডার ব্যাটার ভিভিএস লক্ষ্মণের সাথেও কথা বলে তাকে এনসিএতে যোগ দিতে রাজি করান।

তবে কিছুদিন আগে, বিরাট কোহলি সম্পর্কিত সাম্প্রতিক বিতর্কের কারণে তিনি একটি বড় ধাক্কা পেয়েছেন। বিরাট কোহলি দাবি করেছিলেন যে তাঁর টি টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর বোর্ড তাকে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে অনুরোধ করেন। এদিকে, সৌরভ বলেছেন যে তিনি নিজে ব্যক্তিগতভাবে বিরাটকে টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছেড়ে না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। দুইজনের কথা দুইরকম। যার জেরে শেষ কিছুদিন তাকে কড়া সমালোচনা সহ্য করতে হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button