টাইমলাইনরাজনীতিক্রিকেট

ফের মোদী-শাহের সঙ্গে সাক্ষাৎ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের! রাজনৈতিক প্রসঙ্গ নাকি অন্যকিছু, তুঙ্গে জল্পনা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গত বিধানসভা নির্বাচনের সময় থেকেই বাংলা সহ দেশের রাজনীতিতে ‘সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়’ (Sourav Ganguly) নামটি অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠেছে। কখনো মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ জল্পনার সৃষ্টি করে, তো অপরদিকে আবার শাহ-মহারাজ বৈঠক মাঝে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসেন ‘প্রিন্স অফ ক্যালকাটা’।

সেই রাজনৈতিক জল্পনা বৃদ্ধি করে ফের একবার মুখোমুখি হলেন অমিত শাহ (Amit Shah), প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) এবং প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক তথা বাংলার ‘মহারাজ’ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। সাক্ষাৎকারে তাদের মধ্যে কোন কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে, সে সম্পর্কে সৌরভের তরফ থেকে এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

উল্লেখ্য, গত বিধানসভা নির্বাচনের সময় থেকেই জল্পনা উঠতে শুরু করে যে, বিজেপির হয়ে বাংলায় মুখ্যমন্ত্রীর পদপ্রার্থী হতে চলেছেন সৌরভ। যদিও পরবর্তীতে সেই জল্পনার অবসান ঘটে। এর মাঝেই বিগত বেশ কয়েক সময় ধরেই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড প্রেসিডেন্ট পদে নিযুক্ত রয়েছেন দাদা। একই সঙ্গে বোর্ডের সহ সভাপতি পদে বিরাজমান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের পুত্র জয় শাহ। ফলে স্বাভাবিকভাবেই গত শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সঙ্গে সৌরভের সাক্ষাৎ বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ।

আসলে গত শুক্রবার কমনওয়েলথ গেমসে খেলা সকল ভারতীয় দলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই অনুষ্ঠানে ভারতীয় দলের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং অপরদিকে হাজির হন অমিত শাহ এবং কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরও। সূত্রের খবর, সাক্ষাৎকারে ভারতীয় ক্রিকেট এবং বোর্ডের ভবিষ্যৎ নিয়েই একাধিক কথাবার্তা হয়েছে তাদের। উল্লেখ্য, বিসিসিআই-এর সভাপতি এবং সহ সভাপতি হিসেবে সৌরভ ও অমিত পুত্রের মেয়াদের সমাপ্তি ঘটেছে। তবে পরবর্তী ক্ষেত্রেও তাদের জুটির ওপরই ভরসা রেখে চলেছে সকলে। এ সকল বিষয় নিয়েই তাদের মধ্যে আলোচনা হয় বলে জানা গিয়েছে।

যদিও বর্তমানে অপর একটি জল্পনার কথা ক্রমশ সামনে উঠে আসছে। আগামী আইসিসি চেয়ারম্যান নির্বাচনে যে লড়তে চলেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, তা সর্বজনবিদিত। এক্ষেত্রে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি হওয়ার সূত্রে সৌরভের লড়াই কিছুটা হলেও সহজ হবে। তবে এক্ষেত্রে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে, যদি ভারতীয় বোর্ড সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে ছাড়তে না চায়, সেক্ষেত্রে পরিস্থিতি কি হবে? তবে শেষ পর্যন্ত বোর্ড প্রেসিডেন্ট নাকি আইসিসি চেয়ারম্যান, কোন পদে নিযুক্ত হন সৌরভ, সেটাই দেখার।

Related Articles