টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

নবান্নের ১৪ তলায় হঠাৎই হাজির শোভন-বৈশাখী! তৃণমূলে ফেরা নিয়ে জোর জল্পনা

বাংলাহান্ট ডেস্ক : বছর দুয়েক আগেকার ঘটনা। ২০১৯-এর ভাইফোঁটার দুপুর। ততদিনে মন্ত্রী মেয়র সহ সব পদ ছেড়ে বলা ভালো একপ্রকার রাজনীতি থেকে সরে গিয়েই বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে গোলপার্কের বাড়িতে থাকা শুরু করে দিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। দেখা যায়, সেই দুপুরেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কালীঘাটের বাড়িতে হাজির হয়েছেন শোভন-বৈশাখী। তারপর আবারও আজ দুপুরে হঠাৎই দেখা গেল শোভন-বৈশাখী যুগলে নবান্নের ১৪ তলায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দফতরে উপস্থিত। দুপুর সাড়ে তিনিটে পর্যন্ত তাঁরা মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে ছিলেন বলেই জানা যাচ্ছে। সেই কারণে এখনও স্পষ্ট নয় ঠিক কী জন্য তাঁরা সেখানে উপস্থিত হয়েছেন? বিশেষ কোনও কারণ নাকি নিছকই সৌজন্য বিনিময়ের সাক্ষাৎ?

তবে এখনও পর্যন্ত জানা যাচ্ছে শোভন-বৈশাখীর সঙ্গে ব্যক্তিগত সাক্ষাৎ হয় মুখ্যমন্ত্রীর। স্বাভাবিক ভাবেই শোভন-বৈশাখীর নবান্নে যাওয়া নিয়ে নানান জল্পনা সৃষ্টি হতে শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতির অলিন্দে। গত বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকেই বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ এক প্রকার বন্ধই করে দিয়েছেন দুজনে। পদ্ম ফুল শিবিরে যখন ছিলেনও তখনও মুরলীধর সেন লেনের নেতাদের সঙ্গে বিশেষ বনিবনা হতো না তাঁদের।

শোনা যায়, বিজেপি নেতারা অনেক সময় ব্যয় করতেন গোলপার্কের ফ্ল্যাটে গিয়ে শোভন-বৈশাখীকে বোঝাতে। সেই সময় এই বোঝানোর ব্যাপারটা বিজেপির পক্ষ থেকে সেই যিনি করতেন সেই জয়প্রকাশ মজুমদারও এখন তৃণমূলে ফিরে এসেছেন। তাই এই হঠাৎ সাক্ষাৎ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে শোরগোল তৈরি হয়েছে যথেষ্ট।

এই মাত্র পাওয়া খবরে জানা যাচ্ছে, নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের পর তৃণমূলে ফেরাট সম্ভবনা আরও বাড়িয়ে দিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন নবান্নে যে রাজনৈতিক আলোচনা হয়েছে তা পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন তাঁরা।

Related Articles

Back to top button