টাইমলাইনভারতখেলাআন্তর্জাতিকক্রিকেট

ভারতের আপত্তিতে পাকিস্তানে নাও হতে পারে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি, অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ মঙ্গলবার আগামী 8 বছরের জন্য নিজেদের সময়সূচী ঘোষণা করেছে আইসিসি। একদিকে যেমন 2024 থেকে 2031 সাল অবধি আগামী আট বছরে সবথেকে বেশি তিনটি টুর্নামেন্ট পেতে চলেছে বিসিসিআই তেমনি এই প্রথমবার একটি গুরুত্বপূর্ণ আইসিসি টুর্নামেন্ট সম্পূর্ণ আয়োজনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে পাকিস্তানকে। 2025 সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি পাকিস্তানেই আয়োজন করার অনুমতি পেয়েছে পিসিবি। 1987 এবং 1996 সালের পর আর কোন আইসিসি টুর্নামেন্ট খেলা হয়নি পাকিস্তানে। যদিও এই দুবারের প্রথমবার ভারত এবং দ্বিতীয়বার ভারত এবং শ্রীলঙ্কার সঙ্গে যৌথভাবে বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল পাকিস্তান।

হঠাৎ এই প্রথমবার এককভাবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির মতো গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট আয়োজন করার সুযোগ পেতে চলেছে তারা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য 2017 সালের শেষবার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে জয়লাভ করেছিল পাকিস্তানই। তাই এবার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে তারা অবশ্যই চাইবে টফি ধরে রাখতে। এ পর্যন্ত মোট 26 টি বিশ্বকাপ ম্যাচ আয়োজন করার অভিজ্ঞতা রয়েছে পাকিস্তানের। এক্ষেত্রে জানিয়ে রাখি পাকিস্তানের আয়োজিত এই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে আদৌ ভারত খেলবে কিনা তা নিয়েও তৈরি হয়েছে প্রশ্ন।

এর উত্তর দিতে গিয়ে বর্তমান ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর বলেন, “সময় হলে ভারত সরকার এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সিদ্ধান্ত নেবে। আন্তর্জাতিক চ্যাম্পিয়নশিপের সময় সমস্ত দিক বিবেচনা করা হয়। নিরাপত্তার কারণে এখনও পর্যন্ত অনেক দেশই পাকিস্তানে খেলতে অস্বীকার করেছে। আপনি জানেন যে সেখানে খেলার সময় অনেক খেলোয়াড় আক্রমণের শিকার হয়েছে এবং এটি একটি বড় সমস্যা যা আমাদের মোকাবেলা করতে হবে।”

উল্লেখ্য, বিশ্বকাপের ঠিক আগেই পাকিস্তান সফরে যাবার পরেও দেশে ফিরে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড, একই নিরাপত্তাজনিত কারণে সিরিজ বাতিল করে দেয় ইংল্যান্ড। এমনকি এই মুহূর্তে দোনামোনা করছে অস্ট্রেলিয়া, তাই অনেকের মতে বড় বড় দেশ গুলি খেলতে আপত্তি জানালে সেক্ষেত্রে হয়তো বা পাকিস্তানকে দুবাইতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আয়োজন করতে হতে পারে, ঠিক যেভাবে করোনার কথা মাথায় রেখে এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দুবাইতে আয়োজন করেছিল বিসিসিআই।

 

Related Articles

Back to top button