টাইমলাইনবিধানসভা নির্বাচনবিনোদনরাজনীতি

পিসি-ভাইপো রাজনীতির জন‍্যই নেতা মন্ত্রীরা তৃণমূল ছাড়ছেন: শ্রাবন্তী চ‍্যাটার্জি

বাংলাহান্ট ডেস্ক: পিসি ভাইপোর জন‍্যই নেতামন্ত্রীরা তৃণমূল (tmc) ছেড়ে দিচ্ছে, সবুজ শিবিরের উদ্দেশে এভাবেই তোপ দাগলেন শ্রাবন্তী চ‍্যাটার্জি (srabanti chatterjee)। অতি সম্প্রতি বিজেপিতে (bjp) যোগ দিয়েছেন তিনি। রবিবার নরেন্দ্র মোদীর ব্রিগেডের জনসভাতেও উপস্থিত হন তিনি।

এদিন সকালে টুইট করে তৃণমূলকে কটাক্ষ করেন শ্রাবন্তী। তিনি লেখেন, ‘পিসি ভাইপো রাজনীতির জন‍্যই নেতা, কর্মী, মন্ত্রীরা তৃণমূল ছাড়তে বাধ‍্য হচ্ছে। এই দুজন সবসময় নিজেদের ক্ষমতার অপব‍্যবহার করে এসেছে।’ এভাবেই তীক্ষ্ণ কটাক্ষ বাণ হেনেছেন তিনি মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায় ও অভিষেক বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ের উদ্দেশে।


এদিন সংবাদ মাধ‍্যমের ক‍্যামেরার মুখোমুখি হয়ে অভিনেত্রী বলেন, প্রথম বার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে মুখোমুখি সাক্ষাৎ হবে তাঁর। উত্তেজনায় সারা রাত ঘুমাতে পারেননি। সকালেও উঠে পড়েছেন তাড়াতাড়ি। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করবেন তিনি। তাঁকে বাংলায় আমন্ত্রণ জানাবেন বলে মন্তব‍্য করেন শ্রাবন্তী।


বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া নিয়েও মন্তব‍্য করেন শ্রাবন্তী। তবে তাঁর বক্তব‍্য, দল যা সিদ্ধান্ত নেবে সেটাই করবেন তিনি। সোশ‍্যাল মিডিয়ায় ব‍্যক্তিগত আক্রমণ নিয়ে শ্রাবন্তী বলেন, তাঁর সংসারে কি ঘটছে না ঘটছে তা তো তিনি ছাড়া আর কেউ জানে না। সকলের ব‍্যক্তিগত জীবন থাকে। তবে তাঁকে প্রচুর মানুষ ভালবেসে এসেছে। তাই এসব কিছুতে খুব একটা পাত্তা দেন না তিনি।

মিঠুন চক্রবর্তী আসছেন ব্রিগেডে। খবর শুনে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত শ্রাবন্তী। মিঠুনের উদ্দেশে তিনি বলেন, উনি একেবারে মাটির মানুষ। বিজেপির হয়ে সকলে মিলে সোনির বাংলা গড়ে তুলতে চান শ্রাবন্তী। জয় শ্রী রাম বলে বক্তব‍্য শেষ করতেও দেখা যায় তাঁকে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি শহরের এক পাঁচতারা হোটেলে বিজেপির সাংবাদিক বৈঠকে দলের রাজ‍্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়র উপস্থিতিতে গেরুয়া দলে যোগ দেন শ্রাবন্তী। হাতে তুলে নেন বিজেপির দলীয় পতাকা।

Back to top button