টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘শ্রীরামপুর চায় নতুন সাংসদ’, অভিষেকের ভাইয়ের দাবিতে কল্যাণের ডানা ছাঁটার ইঙ্গিত

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ সম্প্রতি ডায়মন্ড হারবারকে মডেল হিসেবে প্রতিস্থাপন করার চেষ্টা করার মন্তব্য করায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে (abhishek banerjee) ঝাঁঝালো আক্রমণ করেন কল্যাণ বন্দ্য়োপাধ্যায় (kalyan banerjee)। যা নিয়ে রীতিমত চাপানউতোর শুরু হয় বঙ্গ রাজনীতির অন্দরে। এবার কল্যাণ বন্দ্য়োপাধ্যায়কে আক্রমণই শুধু নয়, তাঁকে তাঁর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার দাবিও করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই আকাশ বন্দ্যোপাধ্যায় (akash banerjee)।

করোনা আবহে নিজের কেন্দ্র ডায়মন্ড হারবারের কথা চিন্তা করে, সর্বোপরি মানুষের কথা চিন্তা করে, সমস্ত অনুষ্ঠান আগামী ২ মাসের জন্য বন্ধ রাখার কথা বলেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ডায়মন্ড হারবারের মানুষের জন্য দিয়েছিলেন একগুচ্ছ নির্দেশিকা। কিন্তু দলের নেত্রীর বিরুদ্ধে গিয়ে তাঁর এমন মন্তব্যকে সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত মন্তব্য বলেই দাবি করেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

তবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সমস্ত মন্তব্যকে একদমই আমল দিতে নারাজ শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, ‘দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক পদটি হল সর্বক্ষণের। সেই কারণেই এই পদে বসার পর কারো কোন ব্যক্তিগত মত আলাদা করে থাকে না। মমতাই নেতা এবং অভিষেক শুধুমাত্র একজন পদাধিকারী। এখনও পর্যন্ত অভিষেকের নেতৃত্বের কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি। ত্রিপুরা, গোয়া জিতিয়ে মুখ্যমন্ত্রী করে দিলে, তখন অভিষেককে নেতা বলে মনে করা হবে’।

তৃণমূল সাংসদের এমন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার রাতে নিজের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে একটি বিস্ফোরক পোস্ট করেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই আকাশ বন্দ্যোপাধ্যায় । তিনি লেখেন, ‘পরিবর্তনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে, নিজেকে হাসির পাত্র করবেন না’।

এমন বাকবিতণ্ডার মাঝে একদিকে অভিষেক আর অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীর তৃণমূলের চিন্তাভাবনা যে আলাদা ভাবে চলে, সেটা অনেকেই বুঝতে পেরেছেন।

Related Articles