টাইমলাইনটাকা পয়সাভারত

মাত্র ২ হাজার টাকা দিয়ে শুরু করুন এই গাছের চাষ, আয় হবে ৪ লক্ষ টাকা

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: বনসাই উদ্ভিদের নাম আজকালকার দিনে অনেকেই শুনেছেন। অনেকেই বনসাই-কে সৌভাগ্যের প্রতীক বলে থাকেন। তাই আজকাল এর চাহিদা অপরিসীম। তাই আপনি যদি নতুন কোনও ব্যবসা শুরুর কথা ভাবেন, তাহলে এই গাছের চাষ করার কথা ভাবতে পারেন। এর মাধ্যমে আপনি ভাল অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। কেন্দ্রীয় সরকারও বর্তমানে এই চাষের জন্য আর্থিক সাহায্য করে থাকে।

ভাগ্য বদলে দেওয়ার অলৌকিক গুন থাকায় এটি আজকাল বাড়ি এবং অফিসের সাজসজ্জার কাজেও অনেকে এর ব্যবহার করে থাকে। এই কারণে আজকাল বাজারে এর চাহিদা অনেক বেশি। আজকাল, বাজারে এই গাছগুলির দাম ২০০ টাকা থেকে ২৫০০ টাকার মধ্যেও হতে পারে। এছাড়াও বনসাইয়ের প্রতি অনুরাগী লোকেরা যে কোনও মূল্য দিতে প্রস্তুত থাকেন।

খুব অল্প পুঁজিতে এই ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে। তবে এই ব্যবসায় লাভ করতে আপনাকে কিছুটা ধৈর্য ধরতে হবে। কারণ বনসাই গাছ বেড়ে উঠতে কমপক্ষে দুই থেকে পাঁচ বছর সময় লাগে। এছাড়াও আপনি চাইলে নার্সারী থেকে প্রস্তুত চারা এনে ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ বেশি দামে বিক্রি করতে পারেন। এই ব্যবসা শুরু করতে আপনার প্রয়োজন বিশুদ্ধ জল, বেলে মাটি, কিছু কাঁচের পাত্র, ১০০ থেকে ১৫০ বর্গফুট জায়গা, পরিষ্কার নুড়ি, পাতলা তার, গাছে জল দেওয়ার স্প্রে বোতল। এছাড়া যেই জায়গায় গাছটি বেড়ে উঠবে সেখানে শেড তৈরির জন্য জালিও লাগবে। আপনি যদি ধীরে চলো নীতিতে অগ্রসর হতে চান তবে প্রায় ৫০০০ টাকা আপনাকে বিনিয়োগ করতে হবে। বড় করে ব্যবসা শুরু করলে সেই খরচ পৌঁছবে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

বনসাই গাছের চাষে তিন বছরে গড়ে আপনার এক একটি গাছের পেছনে ২৪০ টাকা খরচ হবে, তবে আপনি প্রতিটি গাছের জন্য ১২০ টাকা করে সরকারি সাহায্য পাবেন। উত্তর-পূর্ব ভারত ছাড়া অন্যান্য এলাকায় চাষের জন্য ৫০ শতাংশ সহায়তাও দেওয়া হয় সরকারের তরফ থেকে। জেলার নোডাল অফিসার আপনাকে এটি সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য দেবেন।

বনসাইয়ের চাহিদা ও প্রজাতি অনুযায়ী এক হেক্টরে ১৫০০ থেকে ২৫০০ গাছ লাগাতে পারেন। আপনি যদি ৩×২.৫ মিটারে একটি চারা রোপণ করেন, তাহলে এক হেক্টরে প্রায় ১৫০০ টি গাছ লাগানো হবে। শুধু তাই নয়, আপনি চাইলে দুটি গাছের ফাঁকে ফাঁকে অন্য ফসলও চাষ করতে পারেন। এরপর আপনি ৪ বছর পর থেকে প্রায় ৩,০০,০০০ লক্ষ টাকা আয় করতে শুরু করবেন।

Related Articles