আন্তর্জাতিকটাইমলাইনভারত

করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষার্থে ভারতীয় ছাত্রদের চীন থেকে ফিরিয়ে আনছে সরকার, ভাগ্যের ভরসায় পাকিস্তানি ছাত্রছাত্রীরা

করোনা ভাইরাসের (Corona Virus) প্রভাবে পুরো চীন (China) বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশ্বের সমস্থ দেশগুলিও আতঙ্কিত রয়েছে। এই ভাইরাসের সরাসরি প্রভাব থেকে বাঁচতে অনেকে মাংস বা মাংস জাতীয় খাবার থেকে বিরত থাকার কথা বলেছেন। চীনের খারাপ পরিস্থিতির মধ্যে অনেক ভারতীয়ও আটকে পড়েছেন।

চীন থেকে ভারতীয় নাগরিকদের ভারতে ফিরিয়ে আনার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। বিদেশ মন্ত্রালয় টুইট করে জানিয়েছে যে ভারতের অনেক শহরে এই মামলা সামনে এসেছে। চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া কোরোনা ভাইরাস সম্পর্কে বিশ্বব্যাপী সতর্কতা রয়েছে এবং ভারতও এর শিকার হচ্ছে। চীনে আটকা পড়ে থাকা ভারতীয় নাগরিকদের সরিয়ে নেওয়ার জন্য ভারত সরকার কাজের গতি বাড়িয়ে দিয়েছে। মঙ্গলবার বিদেশ মন্ত্রালয় এক বিবৃতিতে বলেছিল যে চীনে উপস্থিত ভারতীয়দের যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভারতে আনা হবে। এখন সেই প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গেছে।

বিদেশ মন্ত্রালয়ের মুখপাত্র রবিশ কুমারের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল যে চীনের হুবেই প্রদেশে করোনার ভাইরাসে আক্রান্ত সমস্ত ভারতীয় নাগরিককে অপসারণের প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। বেইজিংয়ে আমাদের দলটি চীন সরকারের সাথে যোগাযোগে রয়েছে এবং ভারতীয় নাগরিকদের আপডেট নিচ্ছে। আমরা এই বিষয়ে ধারাবাহিকভাবে আপডেট দিতে থাকব।

এখন চীন থেকে একটা দুঃখজনক ছবি সামনে আসছে যা পাকিস্তানের সরকারকে লজ্জিত করবে। আসলে ভারত সরকার চীন থেকে নিজেদের লোকজনকে ফিরিয়ে আনার কাজ তীব্র করেছে। চীনের ওহান এলাকায় ভারতের অনেক ছাত্র ছাত্রী পড়াশোনা করে। তাদের ফিরিয়ে আনা হচ্ছে। ওহান এলাকায় পাকিস্তানেরও অনেক ছাত্র ছাত্রীরা পড়াশোনা করে। কিন্তু পাকিস্তান সরকার তাদেরকে ভাগ্যের ভরসায় ছেড়ে দিয়েছে।

ভারত সরকার লাগাতার চীনের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করে রেখেছে সেখানে পাকিস্তানের কিছুজন বলেছেন মরা বাঁচা আল্লাহর হাতে। একটা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ার ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ভারতের দূতাবাস থেকে বাস পাঠানো হয়েছে ভারতীয় ছাত্রদের জন্য যাতে তাদের এয়ারপোর্ট অবাধি নিয়ে যাওয়া যায়। কিন্তু সেখানেই পাকিস্তান ছাত্ররা সেটা দাঁড়িয়ে করুন দৃষ্টিতে দেখছে। পাকিস্তান তার আচরণের জন্য ভারতের শত্রু হলেও ভারতীয়রা এই করুন ভিডিও দেখে দুঃখ প্রকাশ করেছেন ও পাক সরকারকে ধিক্কার জানিয়েছেন।

Back to top button
Close