টাইমলাইনভারত

পরিচারিকার সঙ্গে সঙ্গমে লিপ্ত হতেই মৃগির খিঁচুনি, প্রাণ গেল ৬৭ বছরের বৃদ্ধর! বস্তাবন্দী অবস্থায় উদ্ধার দেহ

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ৬৭ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ যৌন সঙ্গমে মিলিত হয়েছিলেন এক মহিলার সঙ্গে। সঙ্গমের সময় হঠাৎই বৃদ্ধর মৃগির খিঁচুনি ওঠে। মিলন করার সময় মৃত্যু হয় বৃদ্ধর। কিন্তু সেই মহিলা মোটেও চাননি যে প্রকাশ্যে তাদের এই সম্পর্কটি জানাজানি হোক। তাই মৃতদেহ লোপাট করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। তদন্ত শুরু হওয়ার পর পুলিশ এই ব্যাপারটি উদঘাটন করেছে। ঘটনাটি বেঙ্গালুরুর জে পি নগরের।

পুলিশ গত ১৭ ই নভেম্বর রহস্যজনক একটি প্লাস্টিক ব্যাগ উদ্ধার করে বেঙ্গালুরুর জে পি নগর থেকে। প্লাস্টিক ব্যাগটি খোলার পর অবাক হয়ে যান পুলিশের অফিসারেরা। প্লাস্টিক ব্যাগ থেকে উদ্ধার করা হয় এক বৃদ্ধের মৃতদেহ। প্রশ্ন উঠতে শুরু করে এই বৃদ্ধের মৃতদেহ এখানে এল কি করে? পুলিশ শুরু করে তদন্ত। তদন্ত শুরু হলে এই বৃদ্ধের ফোনের তথ্য হাতে আসে। সেই তথ্য যাচাই করে জানা যায় যে শেষ কটা মুহূর্ত এই বৃদ্ধ এক মহিলার বাড়িতে ছিলেন। সেখানেই হঠাৎ খিঁচুনি আরম্ভ হলে তিনি মারা যান।

এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, ৩৫ বছর বয়সী এক মহিলার সাথে সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল ৬৭ বছর বয়সী এক ব্যবসায়ীর। ওই ব্যবসায়ী গত ১৬ ই নভেম্বর বিকেল পাঁচটা নাগাদ সেই মহিলার বাড়িতে যান। সেখানেই মৃত্যু হয় বৃদ্ধ ব্যবসায়ীর। লোকলজ্জার ভয় ওই মহিলা অন্য কাউকে না জানিয়ে ফোন করেন স্বামী ও ছেলেকে। তাঁরা মৃতদেহটি প্লাস্টিকে মুড়ে ফেলে দেন জেপি নগরের একটি ফাঁকা জায়গায়।

Death,Old man,Intercourse,Girlfriend,Epilepsy,Bengaluru

ওই মহিলা পুলিশকে জানিয়েছেন যে, তিনি মোটেও চাননি যে তাঁদের সম্পর্ক প্রকাশ্যে আসুক। তাই তিনি মৃতদেহটি ব্যাগে ভরে ফেলে দেন। অন্যদিকে, পুলিশের পক্ষ থেকে মৃতদেহটি পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে আসলেই অনেক কিছু পরিষ্কার হবে বলে আশা পুলিশের। জানা গিয়েছে যে, ওই মহিলা পরিচারিকার কাজ করেন, আর সেই কাজের সূত্রেই বৃদ্ধের সঙ্গে পরিচয়। বালা সুব্রক্ষণ্যম নামের ওই বৃদ্ধ আদতে একজন ব্যবসায়ী ছিলেন। আর তিনিই নাকি ওই মহিলাকে পরিচারিকার কাজ পাইয়ে দিতেন।

Related Articles