টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বিরাট স্বস্তি মমতা সরকারের! এই বিশেষ মামলায় CBI তদন্তে স্থগিতাদেশ দিল শীর্ষ আদালত

বাংলাহান্ট ডেস্ক : স্কুল সার্ভিস নিয়োগে দুর্নীতি মামলায় সুপ্রিম কোর্টে সাময়িক স্বস্তি পেল রাজ্য সরকার। বেনামী নিয়োগ নিয়ে কলকাতা হাই কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশে ৩ সপ্তাহের জন্য স্থগিতাদেশ জারি করল শীর্ষ আদালত (Supreme Court)। ওই মামলায় সিবিআই (CBI) তদন্ত আপাতত নয়। তাছাড়া শিক্ষাসচিব মণীশ জৈনকেও নিয়মিত আদালতে হাজিরা দিতে হবে না। স্থগিতাদেশে এমনই নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

সম্প্রতি স্কুল সার্ভিস কমিশনে (SSC) সুপার নিউমেরারি পোস্ট বা অতিরিক্ত শূন্যপদ তৈরি করে অযোগ্যদের নিয়োগের জন্য, স্কুল সার্ভিস কমিশনের আনা আবেদনের মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। রাজ্যের শিক্ষাসচিব মণীশ জৈনকেও তলব করেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। কিন্তু শিক্ষাসচিবের হাজিরার সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ডিভিশন বেঞ্চে যায় রাজ্য। সেখানেও বৃহস্পতিবার একই রায় বহাল ছিল।

এরপর বৃহস্পতিবার রাতেই সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় রাজ্য সরকার। আজ শুক্রবার সকালেই শুনানি হওয়ার কথা ছিল। সেই শুনানিতেই সাময়িক স্বস্তি পেল রাজ্য। তিন সপ্তাহের জন্য সিবিআই তদন্ত-সহ হাই কোর্টে এই মামলায় বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের বেশ কয়েকটি নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। শিক্ষাসচিব মণীশ জৈনকে আদালতে নিয়মিত হাজিরার নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। সেই রায়েও জারি স্থগিতাদেশ। অর্থাৎ এখনই নিয়মিত হাজিরা দিতে হবে না ওই আমলাকে।

তবে জানা যাচ্ছে, এই স্থগিতাদেশের আগেই শুক্রবার হাই কোর্টে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাসে হাজিরা দেন মণীশ জৈন। বিচারপতির প্রশ্নের উত্তরে তিনি নাকি বেশ কিছু বিস্ফোরক তথ্য দিয়েছেন। শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশেই ‘অযোগ্যদের বাঁচাতে অতিরিক্ত শূন্যপদ’ তৈরি করা হয়। এই মন্তব্যের পরই এই মামলার সঙ্গে ব্রাত্য বসুর নামও জড়িয়ে গেল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহল।

Related Articles