টাইমলাইনবিনোদন

অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি গায়ক সুরজিৎ চট্টোপাধ‍্যায়, বাতিল রানাঘাটের অনুষ্ঠান

বাংলাহান্ট ডেস্ক: একের পর এক তারকার অসুস্থতার খবর আসছে বিনোদন দুনিয়া থেকে। কিছুদিন আগেই পায়ে চোট পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিল অভিনেত্রী রুক্মিনী মৈত্রকে। এবার অসুস্থ হয়ে পড়লেন জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী সুরজিৎ চট্টোপাধ‍্যায় (Surajit Chatterjee)। হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁকে। কী হয়েছে সুরজিতের?

সঙ্গীতশিল্পীর পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, ফুড পয়জনিং এর শিকার সুরজিৎ। শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি। রানাঘাটে একটি গানের অনুষ্ঠান ছিল সুরজিতের। কিন্তু অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে অনুষ্ঠানটি মিস করেন তিনি। সুরজিতের বদলে ওই অনুষ্ঠানে গায়ক অরিজিৎ চক্রবর্তী গাইবেন বলে খবর।


রানাঘাটে অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রস্তুতি নেওয়া শুরু হয়ে গিয়েছিল। অনুরাগীরাও অপেক্ষা করেছিলেন অনুষ্ঠানটির জন‍্য। কিন্তু পরে একটি নোটিস দিয়ে জানানো হয় যে, অসুস্থতার কারণে আসতে পারছেন না সুরজিৎ। প্রথমে কিছুটা হতাশ হলেও অরিজিৎ চক্রবর্তীর গান শোনার জন‍্য উৎসুক সকলে। অন‍্যদিকে সুরজিতের পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, শিল্পী আগের থেকে অনেকটাই সুস্থ। আগামীকাল অর্থাৎ সোমবার তাঁকে ছেড়েও দেওয়া হবে হাসপাতাল থেকে।

প্রসঙ্গত, দীর্ঘ ২০ বছর ধরে মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিতে রয়েছেন সুরজিৎ। উপহার দিয়েছেন বহু গান। কিন্তু সুরজিতের প্রিয় হয়ে রয়েছে গিয়েছে সেই ‘বারান্দায় রোদ্দুর’। গানটিকে নিজের ভগবান বলে মানেন তিনি। এতদিন ধরে সুপার ডুপার হিটের তকমাটা ধরে রাখা তো চাট্টিখানি কথা নয়।

তবে যে সুরজিৎকে আজ সকলে চেনে ২০ বছর আগে কিন্তু এমনটা ছিলেন না তিনি। সোনার চামচ মুখে জন্মাননি তিনি। স্ট্রাগল করে আজকের এই জায়গাটা পেতে হয়েছে তাঁকেও। একবার এক সাক্ষাৎকারে গায়ক জানিয়েছিলেন, অনেক কোম্পানি ফিরিয়ে দিয়েছে তাঁকে। স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে এ গান চলবে না।

হাতে টাকা ছিল না সে সময়। পরের দিনটা কীভাবে চালাবেন সেই চিন্তাই যখন মাথায় জাঁকিয়ে বসে তখন কিন্তু বাঁচিয়েছিল তাঁর গানই। হঠাৎ করে কোনো বিজ্ঞাপনের সুযোগ এসে যায়। তখন চার পাঁচ লাইন গাওয়ার জন‍্য পারিশ্রমিক পেতেন মাত্র ৫০০ টাকা। সেটা দিয়েই কিছুদিন চালাতেন। তারপর ফের মঞ্চের খোঁজ।

মঞ্চ যখন পেয়েছেন তখন সেটা আর হেলায় হারিয়ে যেতে দেননি সুরজিৎ। তার জন‍্য গিটার, বাঁশি বাজানো শিখেছেন। আজ অন‍্যতম জনপ্রিয় গায়ক তিনি বাংলা মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিতে।

Related Articles