টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

এরপর ঝাড়খণ্ড, তারপর বাংলা! এরাজ্যেও কী সরকার ভাঙবে? শুভেন্দুর মন্তব্য ঘিরে জল্পনা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ প্রথমে মহারাষ্ট্র (Maharashtra) আর এবার বিহার (Bihar), ক্রমাগত একটি ক্ষমতাশালী সরকার ফেলে দিয়ে পুনরায় নতুন জোট সরকার তৈরি হওয়ার ট্রেন্ড ঘিরে বর্তমানে সরগরম রাজনীতি। এই প্রভাব কি এবার বঙ্গেও পড়তে চলেছে? এ বিষয়ে অতীতে একাধিকবার মত প্রকাশ করলেও এদিন সেই জল্পনা পুনরায় একবার উস্কে দিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। বিহারের প্রসঙ্গ উঠতেই শুভেন্দুর দাবি, “এরপর ঝাড়খণ্ড পাল্টাবে, তারপর পশ্চিমবঙ্গ যাবে।” ফলে সব মিলিয়ে মহারাষ্ট্র এবং বিহারের পর এবার বঙ্গের রাজনীতিতেও ক্রমশ বাড়ছে সরকার পতনের জল্পনা।

সম্প্রতি, মহারাষ্ট্রের সরকারপক্ষ শিবসেনা থেকে বেরিয়ে যান বিদ্রোহী দলনেতা একনাথ শিন্ডে। পরবর্তীতে বিজেপির সঙ্গে জোট করে উদ্ধব সরকারের পতন ঘটান তিনি। বর্তমানে বাণিজ্য নগরীতে একনাথ শিন্ডে ও বিজেপি জোট সরকার পদে বিরাজমান।

এর মাঝে বর্তমানে বিহারের রাজনৈতিক পটভূমি পরিবর্তনের জল্পনা ক্রমশ প্রবল হয়ে উঠছে। সূত্রের খবর, বিজেপির সঙ্গে জোট ছেড়ে আরজেডি এবং কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মেলাতে চলেছেন নীতীশ কুমার। তবে গোটা দেশে যখন বিজেপি আধিপত্য বিস্তার করে চলেছে, সেই মুহূর্তে স্রোতের বিপরীতে হেঁটে নীতীশ কুমারের এ পদক্ষেপ ঘিরে ইতিমধ্যে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে গোটা দেশে। এর মাঝে এবার বঙ্গেও পালাবদলের সম্ভাবনা উস্কে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী।

অতীতেও একাধিকবার সরকার পতন প্রসঙ্গে মন্তব্য প্রকাশ করেন শুভেন্দু। সে ক্ষেত্রে মহারাষ্ট্রের পাশাপাশি ঝাড়খণ্ড, রাজস্থান হয়ে বাংলাতেও সরকার পতনের ব্যাপারে সকলকে আশ্বস্ত করেন বিরোধী দলনেতা। এমনকি তিনি জানান, “২০২৪-এ তৃণমূল সরকারের পতন ঘটবে।” আর এদিন বিহার জল্পনার মাঝে শুভেন্দুর দাবি, “আমি বেশি কিছু জানি না। তবে এটুকু জানি, প্রথমে ঝাড়খণ্ড পাল্টাবে, তারপর পশ্চিমবঙ্গও যাবে।” তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এই দাবিকে উড়িয়ে দেওয়া হলেও বিরোধী দলনেতার মন্তব্য ঘিরে বাংলাতেও যে বিতর্ক অনেকাংশ বৃদ্ধি পেলো, তা বলাবাহুল্য।

Related Articles