টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতিকলকাতা

গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে নবান্নতে আমন্ত্রণ শুভেন্দুকে, পাল্টা সরকারকে শর্ত দিলেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক

বাংলাহান্ট ডেস্ক : লোকায়ুক্ত সহ তিন বিভাগের কমিশনার পদে নিয়োগ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে যোগ দেওয়ার জন্য রাজ্যের বিরোধী দলনেতাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে নবান্ন। বিরোধী দলনেতা ছাড়া সেই বৈঠক করা সম্ভব না হলেও এবার বৈঠকে যোগ দেওয়ার জন্য বিশেষ শর্ত দিলেন শুভেন্দু অধিকারী। সেই শর্ত পূরণ না হলে বৈঠকে হাজির হতে মোটেই রাজি নন নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক।

শুভেন্দু অধিকারীর দাবি, তাঁকে নবান্ন থেকে পাঠানো আমন্ত্রণ পত্রে বেশ কিছু ভুল রয়েছে। সেই ভুলগুলি সংশোধন না হওয়া অবধি কোনও মতেই ওই বৈঠকে হাজির হবেন না তিনি। উল্লেখ্য, লোকায়ুক্ত সহ এই ধরনের বিভাগ গুলিতে নিয়োগের প্রক্রিয়ায় উপস্থিত থাকতেই হয় রাজ্যের বিরোধী দলনেতাকে। কিন্তু অভিযোগ ওই আমন্ত্রণ পত্রে নাকি উল্লেখ করা হয়নি সেই কথা।

শুভেন্দু অধিকারীর অভিযোগ, নবান্নের তরফে তাঁকে পাঠানো চিঠিতে লেখা হয়েছে, ‘রাজ্যপালের সুপারিশে আমন্তণ জানানো হচ্ছে বিরোধী দলনেতাকে’। আর ঠিক এই লাইনটি নিয়েই আপত্তি তাঁর। শুভেন্দুর দাবি, যেখানে বিরোধী দলনেতা অপরিহার্য সেখানে কেন রাজ্যপালের সুপারিশের কথা বলা হবে আমন্ত্রণ পত্রে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার মধ্যে এহেন ‘ভুল’ শুধরে নতুন করে তাঁকে আমন্ত্রণ পত্র যদি পাঠানো হয় সরকারের তরফে, তবে এই বৈঠকে উপস্থিত হওয়ার কথা ‘ভাববেন’ বলে জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

উল্লেখ্য, লোকায়ুক্ত ছাড়াও মানবাধিকার কমিশন এবং তথ্য কমিশনের চেয়ারম্যান পদেও নিয়োগ করা হবে ওই দিনই। ফলে তিনটি নিয়োগেই আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে শুভেন্দু অধিকারীকে। এর আগে অবশ্য এই ধরণের বৈঠকে যোগ দিতে বিধানসভাতেই যেতে হয়েছিল বিরোধী দলনেতাকে। এই প্রথম নবান্নে হবে বৈঠক। সেখানেই ডাকা হয়েছে শুভেন্দুকে। আগামী ২৩ মে বিকেল ৪টে এবং সাড়ে ৪টেয় হবে এই সংক্রান্ত বৈঠক। তাতে হাজির হন কি না রাজ্যের বিরোধী দলনেতা তাই এখন দেখার।

Related Articles

Back to top button