টাইমলাইনভারত

পার্লারে নারীকে পুরুষ মাসাজ করলে অসুবিধে কোথায়?, বললেন তসলিমা নাসরিন

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সম্প্রতি দেশজুড়ে পার্লারগুলোতে নিয়ম হয়েছে কোন নারীকে কোন পুরুষ মেসেজ দিতে পারবেন না। যদিও বা কোথাও কোথাও এখনো পর্যন্ত সেরকম কোনো বাধ্যবাধকতা তৈরি করা হয়নি। বাংলাদেশী লেখিকা তসলিমা নাসরিন কোনদিনই তার নিজস্ব মতামত সবার সামনে প্রকাশ করতে দ্বিধা বোধ করেননি। সম্প্রতি ঘুরতে গিয়ে তিনি একজন পুরুষের কাছেই মাসাজ করালেন। নিজের ফেসবুক পেজ থেকে তিনি তার আগের অভিজ্ঞতা এবং বর্তমান অভিজ্ঞতা লিখলেন, পেশাদারিত্ব থাকলে নারী-পুরুষ কোনটাই সমস্যা হয়ে দাঁড়ায় না। আর কি লিখলেন পড়ে নিন।

“ভারতে নতুন একটি আইন হয়েছে মাসাজ পারলারগুলোয় পুরুষকে নারী, নারীকে পুরুষ মাসাজ করতে পারবে না। আমার হাত পা তো মাসাজ হয়ে গেল আজ। বাকি যেটুকু রইলো তা মাসাজ করলে কোনও ক্ষতি ছিল না। সুইডিশ ক্লাসিক মাসাজ যতবারই নিয়েছি ইউরোপে, পুরুষ করেছে। মাসাজের বেলায় সেগ্রেগেশান কেন! একবার তো ভারতের এক সেলুনে এক মেয়েকে দিয়ে মাসাজ করাতে গিয়ে বিপাকে পড়েছিলাম। মেয়েটি হয়তো নিজে লেসবিয়ান, অথবা সে ধরেই নিয়েছিল আমি লেসবিয়ান, তা না হলে একটা মেয়েকে দিয়ে এত টাকা খরচ করে মাসাজ করাচ্ছি কেন। পুরো-শরীর -মাসাজ শুরু করার আগে আমার আন্ডারগারমেন্টস সে খুলিয়ে ছেড়েছিল। আসলে পুরুষ বা নারী যে-ই মাসাজ করুক, পেশাগত সততা থাকলে কোনও তো অসুবিধে নেই। আর যদি দুজনে মাসাজের সময় উত্তেজিত হয়েই পড়ে, যৌন সম্পর্কে উভয়ে রাজি হলে, জবরদস্তি কিছু না হলে, ধর্ষণ না হলে সরকারের অসুবিধে কী!”

Leave a Reply

Close
Close