টাইমলাইনভারত

জুতোর সোলে লেখা হয়েছে ‘ঠাকুর’! দোকানদার এবং কোম্পানির বিরুদ্ধে দায়ের হল মামলা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ উত্তরপ্রদেশের (uttarpradesh) বুলন্দশহরে রমরমিয়ে জুতোর (shoe) ব্যবসা করছিলেন নাসির নামে এক যুবক। কিন্তু তাঁর ব্যবসায়ে বাঁধ সাধল জুতো। দেখা গেল জুতোর নীচে সোলে লেখা রয়েছে ‘ঠাকুর’। জুতোয় ঠাকুর লেখা থাকার কারণেই গরাদের ওপারে যেতে হল দোকানদারকে।

খাস যোগী আদিত্যনাথের রাজ্য উত্তরপ্রদেশেই এই ঘটনা ঘটায় শোরগোল পড়ে গেছে চারিদিকে। পুলিশ ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত দোকানদারকে গ্রেফতার করেছে এবং এই বিষয়ে তদন্তও শুরু করেছে। শান্তিভঙ্গ ও ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগে এবং সম্প্রীতি নষ্টের অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩এ ধারায় দোকানদার নাসিরের নামে মামলা করা হয়েছে। তবে পরবর্তীতে জানা গেছে দোকানদারকে ছেড়ে দিয়েছে প্রশাসন।

বিষয়টা হল, উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরে নামে নাসির নামে এক ব্যবসায়ীর জুতোর দোকান ছিল। তিনি পাইকারি দরে জুতো কিনে দোকানে বিক্রি করতেন। কিন্তু তাঁর দোকানের জুতোর নীচে সোলে দেখা যায় ‘ঠাকুর’ লেখা রয়েছে। এই লেখা থাকার কারণেই যত বিপত্তি।

স্থানীয় বজরং দলের সদস্য বিশাল চৌহান ওই দোকানদারের নামে পুলিশের কাছে শান্তিভঙ্গ ও ভাবাবেগে আঘাত করার অভিযোগ করেন। যার ফলেই পুলিশ এসে গ্রেফতার করে নাসিরকে। তবে নাসির জানিয়েছেন, তিনি একটি জায়গা থেকে পাইকারি দরে জুতো কিনে আনেন এবং যারা জুতো তৈরি করে তাদের পদবী ঠাকুর। সেই হিসেবেই তারা হয় তাদের কোম্পানির জুতর সোলে ঠাকুর লিখে রেখেছেন। এবিষয়ে সে সম্পূর্ণ নির্দোষ।

নাসিরের দোকানে জুতো কিনতে গিয়ে এক ব্যক্তির চোখে পড়ে এই বিষয়টি। তারপর থেকেই বিষয়টি জানাজানি হয়। তবে এবিষয়ে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অতুলকুমার শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, পুলিশ তদন্তে নেমেছে।

Back to top button