টাইমলাইনভারতরাজনীতি

আত্মঘাতী হলেন বিজেপি নেতা, বেকারত্বের জন্য ভুগছিলেন দুশ্চিন্তায়

Bangla Hunt Desk: নেই কাজের সন্ধান, সেইসঙ্গে নেই মাথা গোজার ঠাই টুকুও। দীর্ঘদিন ধরে ঘুরেও প্রধানমন্ত্রীর আবাস যোজনার অধীনে মেলেনি কোন ঘর। অবশেষে আত্মঘাতী হলেন ইটাওয়া জেলার বিজেপি (Bharatiya Janata Party) নেতা প্রমোদ যাদব, এমনটাই অভিযোগ উঠেছে। সাইফাই মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হলেও শেষরক্ষা হয় না।

ইটাওয়া জেলার সাইফাই থানাধীন নাগলা সাবির বাসিন্দা বিজেপির সাইফাই পল্লী বোর্ডের মন্ত্রী বছর ৩৫ -এর প্রমোদ যাদব শনিবার সন্ধ্যায় নিজের ভাগ্যকে দোষারোপ করে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন। দাবি উঠেছে, বর্তমান সময়ে বেকারত্বের জ্বালা এবং সেইসঙ্গে নেই মাথা গোজার ঠাই। গ্রামের প্রধান ও সচিবের কাছে বিগত কয়েক মাস ধরে ঘোরার পরও প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আয়ত্তায় মেলেনি ঘর।

দুই সন্তান এবং স্ত্রীকে ছেড়ে শনিবার বিকেল ৪ টে নাগাদ বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হন বিজেপির সাইফাই পল্লী বোর্ডের মন্ত্রী প্রমোদ যাদব। এবিষয়ে বিজেপির জেলা সভাপতি অজয় ​​প্রতাপ সিং-এর দাবী, প্রমোদ একজন সাইফাই পল্লী বিভাগের মন্ত্রী ছিলেন। বিগত বেশ কিছু দিন ধরেই বেকারত্ব এবং আবাসন নিয়ে উদ্বিগ্ন ছিল প্রমোদ। গ্রামের প্রধান ও সচিবের কাছে গিয়েও কোন লাভ হয়নি তাঁর। অবশেষে পারিবারিক কলহের বশে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।

বর্তমান দিনের ক্ষমতাসীন দলের একজন সদস্য হয়েও নিজের জন্য কিছুই করতে পারেনি প্রমোদ। সংসারের দুর্দিনের কথা চিন্তা করে তাই সে এই পথ বেছে নেয়। সাইফাই মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে শনিবার রাতে তাঁকে ভর্তি করলেও, চিকিৎসারত অবস্থায় মারা যায় প্রমোদ। পোস্ট মর্টেমের জন্য তাঁর লাশ নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

Back to top button