টাইমলাইনভারতভাইরালভিডিও

কোভিড হাসপাতালে বসে জমিয়ে চলছে মদ্যপান, ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর তদন্তের নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনাকালে স্যোশাল মিডিয়ার পর্দায় নানারকম ভাইরাল ভিডিও (Viral video) উঠে এসেছে, যা দেখে গৃহবন্দি মানুষজন হাসির রসদ পেয়েছে। কখনও মানবিক আবেদন মূলক, তো কখনও হাস্যরসাত্মক। নানাভাবে আনন্দিত হয়েছে গৃহবন্দি মানুষজন। তবে এরই মাঝে এমন কিছু ভিডিও দেখে গেছে, যা ঘিরে অসচেতনতার আঙ্গুল উঠেছে প্রশাসনের দিকে।

করোনা হাসপাতালে মদ্যপান
সম্প্রতি ঝাড়খণ্ডের শিব কলোনি কাতরাসের বাসিন্দা এক বয়স্ক দম্পতিকে অপহরণের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় শান্টু গুপ্তকে। ধৃত অপরাধীর করোনা টেস্ট করা হলে, রিপোর্ট পজেটিভ আসায় তাঁকে করোনা হাসপাতালে রাখে ঝাড়খণ্ড প্রশাসন। কিন্তু সেখানেই নিজের আমোদ প্রমোদের ব্যবস্থা করে নেয় এই অভিযুক্ত। কোভিড ওয়ার্ডে থাকলেও, সেখানেই মদ্যপান করতে শুরু করেন বছর ৩০ -এর আসামী শান্টু গুপ্ত। নিজের এই কর্মকান্ডের ভিডিও আবার নিজেই ফ্রেমবন্দি করলেন শান্টু গুপ্ত।

ভাইরাল ভিডিওর বিবরণ
ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, এক হাতে হাতকড়া পড়ানো রয়েছে শান্টু গুপ্তর। টেবিলে থরে থরে সাজানো রয়েছে নানান ধরনের খাবার। তবে সেগুলো কিন্তু থালায় সাজানো নয়, দোকান থেকে কিনে আনা হয়েছে। খাবারের প্যাকেট দেখেই তা আন্দাজ করা যাচ্ছে। সেইসঙ্গে তার হাতে রয়েছে মদের বোতলও। ভিডিওতে স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছে অভিযুক্ত যেখানে বসে এই খাবারের আয়োজন করেছেন সেটি একটি হাসপাতাল।

 

অসচেতনতার অভিযোগ উঠছে
এই ঘটনার ভিডিও স্যোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই প্রশাসন সহ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সচেতনতার উপর আঙ্গুল উঠেছে। কিভাবে সেইসময় সেইস্থানে কোন নার্স বা চিকিৎসক উপস্থিত ছিলেন না, তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। পূর্বেই ধানবাদের Bharat Coking Coal Limited (BCCL)-এর হাসপাতালের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে অনেক অভিযোগ উঠেছিল। এই ঘটনা সেই অভিযোগকে আরও জোরাল করে তুলেছে।

তদন্ত চলছে
ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কিভাবে এই ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখা হবে। সেইসঙ্গে ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন এই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। ধানবাদের ডেপুটি কমিশনার উমাশঙ্কর সিংহ জানিয়েছেন, ‘‘ঘটনার তদন্ত চলছে। রিপোর্ট নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হবে।’’

Related Articles

Back to top button