টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

চীনা নাগরিকদের উপর হামলা চালালো বালুচ বিদ্রোহীরা, চাপে ইমরান সরকার

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ গলা অবধি ঋণে ডুবে থাকা পাকিস্তান (pakistan) এবং চালবাজ চীনের (china) আসল রূপটা খুব ভালো ভাবেই জানে বালুচিস্তান (Balochistan)। বিভিন্ন সময়ে তাদের উপর নানাভবে অত্যাচার, জুলুমবাজি লেগেই রয়েছে। তবে বর্তমান দিনে বালুচিস্তানের নাগরিকদের ক্ষোভের শিকার হচ্ছে চীনা নাগরিকরা। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে পাক সেনাবাহিনী কি করবে বুঝে উঠতে পারছে না।

বালুচিস্তানের নাগরিকরা সম্প্রতি নিজেদের ভাগ্যের সঙ্গে সমঝোতা করে চুপচাপ থাকতে শুরু করে। কিন্তু পাকিস্তান সরকার যেভাবে চীনা রাষ্ট্রপতি জিনপিং-কে খুশি করার জন্য বালুচিস্তানের উপর আবারও অত্যাচার শুরু করেছিল, তাতে করে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যায় বালুচিস্তানের বাসিন্দাদের।

এই পরিস্থিতিতে ঘুরে দাঁড়ায় বালুচ নাগরিকরা। CPEC-কে নিযুক্ত পাকিস্তানী সেনাদের উপরও হামলা চলায় বালুচ নাগরিকরা। শুধুমাত্র পাক সেনাবাহিনীই নয়, চীনা নাগরিকদের উপরও তাদের ক্ষোভ উগরে দিতে থাকে। চীনা বাণিজ্য দূতাবাস এবং গয়াদারের পার্ল হোটেলে হামলা হওয়ার পর বালুচ নাগরিকদের ক্ষোভের প্রকাশ ঘটতে থাকে। পাশাপাশি সেখানে অবস্থিত চীনা স্টক এক্সচেঞ্জের উপরও হামলা চালায়।

এই ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে চীন সরকার যাতে আবার পাকিস্তানের হুক্কা-পানি না বন্ধ করে দেয়, সেজন্য পাক সেনাবাহিনী বালুচিস্তানের নাগরিকদের উপর আরও বেশি করে অত্যাচার চালাতে শুরু করে। এর আগেই ডিসেম্বরে একবার বালুচ নাগরিকদের উপর অমানবিক অত্যাচার চালিয়েছে পাক সেনবাহিনী। কিন্তু বালুচ নাগরিকরা স্বাধীনতার আন্দোলন চালিয়েই যাবে, তারা এই আন্দোলন থেকে হটতে নারাজ বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে। তারা পাক সেনাবাহিনীর অত্যাচারের ভিডিও স্যোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল করে তাদের উপর হামলার বিষয়ে গোটা পৃথিবীকে জানায়। তারা সর্বদা নিজেদের অধিকাররের দাবিতে পাক সেনাদের বিরুদ্ধে আন্দোলনা চালিয়েই যাচ্ছে।

Back to top button