আন্তর্জাতিকটাইমলাইনভারত

বিশ্বের আকর্ষণ টানছে ভারত, UNSC তে ভারতকে স্থায়ী পদ দেওয়ার দাবি হচ্ছে আরো তীব্র

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ সযুক্ত রাষ্ট্র সুরক্ষা পারিষদে (UNSC) স্থায়ী সদস্য পদ লাভের জন্য ভারত (INDIA) অনেক দিন ধরেই চেষ্টা করে চলেছে। এই পদের অধিকারের ক্ষমতা অর্জন করা সত্ত্বেও ভারত এখনও এই পারিষদের সদস্যপদ লাভ করতে পারেনি। বিশ্বের অনেক দেশ ভারতের স্থায়ী সদস্যপদ লাভের জন্য ভারতকে সমর্থনও করেছে। কিন্তু তাতেও কোন লাভ হয়নি। কিন্তু এখন যখন সমগ্র বিশ্ব মারণরোগ করোনা ভাইরাসের দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে, এইসময় ভারত সর্বশক্তি দিয়ে বিশ্বের কাছে নিজের এক ভাবমূর্তি তুলে ধরেছে।

 

করোনা ভাইরাসের (COVID-19) প্রসার রোধে ভারত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এবং বিভিন্ন দেশকে এই সংকটের সময় সাহায্যও করছে। যার জন্য ভারত খুব প্রশংসিত হচ্ছে অন্তরাস্ট্রীয় স্তরেও। করোনা ভাইরাসের মোকাবিলা করার জন্য আমেরিকা, ব্রাজিল, ইজরায়েল, স্পেন এবং অস্ট্রেলিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রধানরা ভারতের প্রশংসা করেছে। মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প, ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নিতানিয়াহু ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন। ভারতকে সার্বজনীক ভাবে ধন্যবাদও জানিয়েছে।

এই সময় সযুক্ত রাষ্ট্র সুরক্ষা পারিষদে স্থায়ী সদস্য লাভের জন্য ভারতের ভূমিকা আরও জোরদার হয়ে উঠছে। এই সদস্যপদ লাভের জন্য ভারত এখন অধির আগ্রহে অপেক্ষা করছে। বর্তমানে ১২০ কোটিরও বেশি জনসংখ্যার এই দেশ আগামী ১০ বছরের মধ্যে জনসংখ্যার দিক থেকে সবথেকে বৃহত দেশে পরিণত হতে পারে। যার দরুণ ভারতের ওই সদস্য পদ পেতে কোন অসুবিধা হবে না।

এছাড়াও ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় অর্থনীতি সম্পন্ন দেশ। ভারত বেশ কয়েক বছর ধরে সযুক্ত রাষ্ট্র সুরক্ষা পারিষদে স্থায়ী সদস্য পদ পাওয়ার আশায় কথাবার্তা বলছেন। কেন্দ্র সরকার এই বিষয়ে সবরকম চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সংকটের পরিস্থিতিতে থেকেও ভারত কিন্তু তার প্রতিবেশী দেশগুলোর পাশে সবসময় রয়েছে। এমনকি করোনা পরিস্থিতি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ভারত SAARC অন্তর্ভুক্ত দেশগুলোকে অর্থ একত্রিত করার কথাও বলে। সেই কারণে SAARC অন্তর্ভুক্ত দেশগুলো এক জরুরিকালিন ফাণ্ডও গঠন করে।

 

করোনা ভাইরাসের মোকাবিলা করার জন্য ভারত যেভাবে অন্যান্য দেশের পাশে দাঁড়িয়েছে, তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। এই পরিস্থিতিতে সযুক্ত রাষ্ট্র সুরক্ষা পারিষদে স্থায়ী সদস্য পদ পাওয়ার থেকে ভারতকে কোন ভাবেই আর বাতিল করা যাবে না।

Back to top button