টাইমলাইনভারত

রিপোর্টঃ বায়ুদূষণের ফলে দেশে বাড়ছে গর্ভপাতের সংখ্যা, চিন্তায় বিজ্ঞানীরা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বর্তমান সময়ে বায়ুদূষণ (air pollution) একটি বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। বায়ুদূষণের ফলে পরিবেশ তথা প্রাণীকূল যেমন ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে, তেমনি বাড়ছে গর্ভপাতের (Miscarriage) সংখ্যাও। করোনা আবহে লকডাউনে যান চলাচল এবং বেশিরভাগ কলকারাখানা বন্ধ থাকায় এক ধাক্কায় বায়ুদূষণের পরিমাণ বেশ অনেকটাই কমে গিয়েছিল। প্রকৃতি যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছিল। কিন্তু নিউ নর্মালে সবকিছু যখন স্বাভাবিকের দিকে এগোচ্ছে তখন আবারও সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে এই বায়ুদূষণ।

The Lancet Planetary Health journal-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদন দেখে শিউরে উঠেছেন বিশেষজ্ঞরা। বায়ুদূষণ যেমন পরিবেশ তথা প্রাণীকূলের ক্ষতি করছে, তেমনি এই বায়ুদূষণের ফলে বাড়ছে গর্ভপাতের সংখ্যাও। এই সমীক্ষা দেখে বেশ চিন্তায় পড়ে গেছেন বিজ্ঞানীরা। তাদের সতর্কবাণী, এখন থেকেই সাবধান না হলে, ভবিষ্যতের জন্য অপেক্ষা করছে বড় বিপদ।

বায়ুদূষণ,গর্ভপাত,air pollution,Miscarriage

এতকাল যাবৎ মহিলাদের গর্ভপাতের কারণ হিসাবে দায়ি করা হত পারিবারিক সমস্যা, অর্থনৈতিক টানাপোড়েন, শারীরিক সমস্যা এমনকি মানসিক অসুস্থতাও। কিন্তু এবার সেই তালিকায় ঢুকে পড়ল বায়ু দূষণ। সমীক্ষা বলছে, গোটা বিশ্বের মধ্যে দক্ষিণ এশিয়ার বায়ুর পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ। এই বিষয় নিয়ে চিন্তায় রয়েছে খোদ WHO ।air pollution

জানা গিয়েছে, বায়ুতে থাকা প্রতি ঘনমিটারে ১০ মাইক্রোগ্রামের জন্য ২৯ শতাংশ গভার্বস্থার মারাত্মক ক্ষতি সাধন করছে। ক্ষুদ্র ধুলিকনা সহ বিভিন্ন বিষাক্ত উপাদানই হল গর্ভপাতের মূল কারণ। দক্ষিণ এশিয়াতে ৩৪৯৬৮১ সংখ্যক মাহিলার প্রতিবছর গর্ভপাত হয়। সমীক্ষা বলছে ২০০০ সাল থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে সেই পরিমাণ ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

Related Articles