টাইমলাইনভাইরালভিডিও

ইঞ্জেকশন নেওয়ার ভয়েই চিৎকার করে চেয়ার থেকে পড়ে গেলেন ব্যক্তি! নেটদুনিয়ায় ভাইরাল মজাদার ভিডিও

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বর্তমান দিনে সংবাদ বিভাগে ভাইরাল ভিডিও (viral video) খুবই জনপ্রিয় একটি বিষয়ে হয়ে দাঁড়িয়েছে। স্যোশাল মিডিয়ার দৌলতে ঘরে বসেই তা সে টিভির পর্দা হোক কিংবা মোবাইল স্ক্রীন- ভাইরাল ভিডিও মন জয় করে নিয়েছে আট থেকে আশি সকলেরই। হাসতে কে না ভালোবাসে বলুন, তাই আজকের দিনের এই ব্যস্ততার মধ্যে এই সকল ভাইরাল ভিডিও হাসির মধ্যে দিয়ে মানুষকে কিছুটা চাপমুক্ত হতেও কিছু সাহায্য করে।

একদিকে যেমন কাজের ফাঁকে ভাইরাল ভিডিও দেখে আপনি যেমন হাসির রসদ খুঁজছেন, তেমন অন্যদিকে সেই হাসির কারণ যে মানুষটি, তাঁর আত্মারাম খাঁচা ছাড়া হওয়ার যোগার হচ্ছে। তবে বর্তমান সময়ে এক ব্যক্তির এক মজাদার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে স্যোশাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিও দেখে একদিকে যেমন নেটনাগরিকরা হেসে খুন হয়েছেন, তেমন মোবাইল স্ক্রিনের উল্টোদিকে থাকা মানুষটির ভয়ে আত্মারাম খাঁচা ছাড়া হবার যোগার হয়েছিল।

ছোট হোক বা বড়, ইঞ্জেকশন (injection) নিতে আমরা সকলেই কিন্তু একটু আধটু ভয় পেয়েই থাকি। অনেকে তো আবার ভয়ে যে চিকিৎসক বেশি ইঞ্জেকশন দেয়, তাঁর ক্লিনিকের ধারে কাছেও যান না। কিন্তু রোগে পড়লে অগত্যা সেই ইঞ্জেকশনই ভরসা। বিকল্প উপায় খুঁজে না পেয়ে প্রাণ হাতে নিয়ে সেই ইঞ্জেকশন যে নিতেই হয়।

https://twitter.com/hvgoenka/status/1349275362539130880

বর্তমানে স্যোশাল মিডিয়ায় ঠিক এরকমই একটি ভিডিও ব্যাপকহারে ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যায়, কোন কারণ বশত এক ব্যক্তিকে ইঞ্জেকশন নিতে হচ্ছে। যিনি ইঞ্জেকশন দিচ্ছেন সম্পূর্ণ পিপিই কিট পরিহিত অবস্থায় রয়েছে এবং আরও একজন সেবা কর্মী রোগীর পাশে দাঁড়িয়ে আছেন। কিন্তু ইঞ্জেকশন নেওয়ার আগেই ভয়ে চেয়ার ছেড়ে দুবার করে মাটিতে পড়ে গেলেন ওই ব্যক্তি। সূঁচ ফোটানোর আগেই শুরু করলেন বিকট চিৎকার। ওষুধ পুশ করার সময় তাঁর এই চিল চিৎকার শুনে পাশের সকলেই তাঁর দিকে তাকিয়ে হো হো করে হেসে উঠলেন। নেটদুনিয়ায় এই ভিডিও পোস্ট হতেই ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়ে যায়।

Back to top button