কলকাতাটাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

জানুয়ারির প্রথমেই শহরে আসছেন প্রধানমন্ত্রী, বিজেপি শক্তিশালী হওয়ার আশঙ্কায় তৃণমূল

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ সংশোধনী নাগরিকত্ব আইন চালু হওয়ার পর থেকে গোটা দেশজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় বইছে।  আর এ রাজ্যে তথা কলকাতায় সে দৃশ্য  আরও প্রকট। সিএএ এবং এনআরসি-র প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছে তৃণমূল, কংগ্রেস, বামেরা। বাংলায় এনআরসি কোনওভাবেই হবে না। এমনটাই প্রতিশ্রুতি দিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। দিকে দিকে প্রতিবাদের ঝড় তুলতে বিক্ষোভ-আন্দোলনে সামিল হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। আর এরই মাঝে বাংলায় তথা কলকাতায় পা রাখতে চলেছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

সূত্রের খবর, জানুয়ারি মাসের ১০ তারিখ একদিনের সফরে আসছেন নরেন্দ্র মোদি। রাজভবনে থাকার কথা রয়েছে তাঁর। তবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর সাক্ষাতের কোনও তথ্য এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। ১১ জানুয়ারি পোর্ট ট্রাস্টের এক অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে তাঁর। সফরকালে রাজ্য বিজেপি-র সঙ্গে বৈঠক করতে পারেন মোদি, যদিও তা এখনও নির্দিষ্ট হয়নি।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন, এবং প্রস্তাবিত এনআরসি নিয়ে এমনিতেই  বিক্ষোভের আগুন জ্বলছে বাংলায়। তার উপর এ বছর ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবসে লালকেল্লার বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে অনুমতি পায়নি বাংলার ট্যাবলো, যার অর্থ বাংলাকে একরকম অপমান করা হয়েছে, বঞ্চিত করা হয়েছে।

এরকম আবহতেই কলকাতায় আসছেন নরেন্দ্র মোদি। নতুন বছরে দেশের প্রধানমন্ত্রী কি বার্তা দেবেন বঙ্গবাসীকে! বাংলার জন্য কি শুধুই বঞ্চনা, তিরস্কার জুটবে নাকি কোনও আশ্বাসবানী, তারই অপেক্ষা। সিএএ-এনআরসি নিয়ে মোদির মন্তব্য কতটা দৃঢ় হবে, মানুষকে আশ্বস্ত করবে নাকি আরও আতঙ্কিত করবে এখন সেটাই প্রশ্ন। নতুন বছরেই এ রাজ্যে পুরসভা নির্বাচন, সেটাও হয়তো আরও বিশেষ হেতু বাংলায় আসার জন্য।

Back to top button