টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

বিজেপি একটা হাই লোডেড ভাইরাস পার্টি, শুধু জানে গুলি আর গালি: মমতা ব্যানার্জী

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ২১ জুলাইয়ের সভা মঞ্চ থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে যে সলতে পাকাবে তৃণমূল তা মোটামুটি আগে থেকেই বোঝা যাচ্ছিল। আগামী লোকসভার কথা মাথায় রেখেই মমতা ব্যানার্জীর ভাষণকে দেশের বিভিন্ন রাজ্য জুড়ে ছড়িয়ে দিতে তৎপর হয়েছিল ঘাসফুল শিবির। সেই সূত্র ধরেই একদিকে যেমন রাজধানী দিল্লিতে আয়োজিত হয়েছিল শহীদ দিবস, ঠিক তেমনি গুজরাট, বিহার, ঝাড়খন্ড, আসাম সহ অন্যান্য রাজ্যেও অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল তৃণমূল।

একুশের বিধানসভার পর এবার একুশের সভা মঞ্চ থেকে ভার্চুয়ালি ফের একবার সকলকে একজোট হওয়ার বার্তা দেন মমতা। বিজেপির বিরুদ্ধে শক্তিধর ফ্রন্ট গড়ে তোলারও পরামর্শ দেন তিনি। এই মুহূর্তে দেশ জুড়ে রীতিমতো শোরগোল ফেলেছে পেগাসাস কান্ড। আজ শহীদ দিবসের সভা মঞ্চ থেকে এই বিষয়টি নিয়েও যথেষ্ট কটাক্ষ ছুঁড়ে দেন মমতা। তার নিজের ভাইপো অভিষেক ব্যানার্জীর ফোনই হ্যাক করা হয়েছিল এই স্পাইওয়্যারের দ্বারা। এমনকি বাদ পড়েননি বিজেপি নেতারাও।

এদিন সে কথা উল্লেখ করতে গিয়ে বিজেপিকে একহাত নেন মমতা। তিনি বলেন, “আজ আমাদের স্বাধীনতা বিপদে। বিজেপি শুধু জানে গুলি আর গালি। একটা হাই লোডেড ভাইরাস পার্টি ওটা। শুধু এজেন্সিকে কাজ লাগানো ছাড়া কিছুই বোঝে না। নিজের দলের লোকেদের বিরুদ্ধেও সংস্থাকে ব্যবহার করে।” কটাক্ষ করে আজ তিনি এও বলেন, বিজেপি মানবাধিকার বলে কিছু বোঝেনা। আপনি কখন খাচ্ছেন কখন ঘুমোচ্ছেন, আপনার ব্রেনও স্ক্যান করে নিচ্ছে ওরা।

সাথে সাথেই পি চিদাম্বরম এবং শরদ পাওয়ারকে উদ্দেশ্য করে তার বার্তা, এই পেগাসাস যেন বিজেপির নাভিশ্বাস হয়ে ওঠে। কোনমতেই একে ভুলে যেতে দেবেন না। আপনাদের ছাড়া হয়নি। আপনারাও ছাড়বেন না। সাথে সাথেই তিনি প্রতিবাদে উদ্বুদ্ধ হওয়ার বার্তা দেন জনগণকেও।

Related Articles

Back to top button