টাইমলাইনভারত

সংখ্যালঘুদের জন্য কেন্দ্রের বরাদ্দ টাকার ১০ শতাংশও খরচ করেনি যোগী সরকার! অভিযোগ বিরোধীদের

Bangla Hunt Desk: মুসলিম বিদ্বেষের অভিযোগ উঠল এবার উত্তরপ্রদেশ সরকার যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) বিরুদ্ধে। নিজেকে হিদুত্ববাদী আইকন হিসাবে ধরে রাখতে রাজ্যের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে অবহেলা করছেন যোগী, বিরোধীরা এমনটাই অভিযোগ করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে।

সংখ্যালঘু উন্নয়ন খাতে কেন্দ্রের বরাদ্দ অর্থের তিনি ১০ শতাংশও খরচা করেননি। কেন্দ্র সরকার যদি টাকা দেয়, তাহলে রাজ্য সরকারের সেই টাকা খরচ করতে অসুবিধা কোথায়? এমনটাও মন্তব্য করছেন বিরোধী দলনেতারা।

সিংহভাগ অর্থই খরচ করেনি যোগী, অভিযোগ
সংখ্যালঘু মন্ত্রক সংসদে শনিবার এক তথ্য পেশ হওয়ার পর, যোগী বিরোধী মনোভাব আরও বেশি করে দেখা দিতে থাকে। রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে সংখ্যালঘু উন্নয়ন খাতে কেন্দ্র সরকার ১৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছিল। কিন্তু যোগী সরকার সেই টাকা থেকে খরচা করেছেন ১৬ কোটি টাকার সামান্য বেশি। সিংহভাগ অর্থই অবশিষ্ট রয়েছে গেছে। এই তথ্য প্রকাশের পর থেকেই রাজ্যের সংখ্যালঘু অধ্যুষিত কেন্দ্রগুলির সাংসদরা যোগী সরকারের উপর রেগে আগুন।

যোগীকে কটাক্ষ দানিশ আলীর
যোগী সরকারের এই আচরণে রীতিমত ক্ষিপ্ত বিএসপি নেতা দানিশ আলী। তাঁর কথায়, কেন্দ্র সরকার যদি সংখ্যালঘুদের জন্য অর্থ বরাদ্দ করেই থাকে, তাহলে রাজ্য সরকারের অসুবিধাটা কোথায়? উত্তরপ্রদেশের মুসলিম অধ্যুষিত এলাকাগুলিতে একটি প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র নির্মান করার অর্থ পর্যন্ত নেই। রাজ্য সরকারের উচিত কেন্দ্রের বরাদ্দ অর্থ সঠিকভাবে খরচা করা।

মুসলিম বিরোধী মনভাবের অভিযোগ
এবিষয়ে উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদ, আমরোহার মতো সংখ্যালঘু অধ্যুষিত এলাকার সাংসদদের বক্তব্য, যোগী সরকারের এই সংখ্যালঘুদের জন্য খরচ করার অংকতেই প্রমাণিত হয়, মুখ্যমন্ত্রী মুসলিম বিরোধী মনভাবাপন্ন’।

প্রসঙ্গত, উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী রূপে অখিলেশ যাদব থাকাকালীন সংখ্যালঘু খাতে যথেষ্ট পরিমাণে খরচ করতেন। তাঁর জামানার শেষ বছর সংখ্যালঘু উন্নয়ন খাতে কেন্দ্রের বরাদ্দ অর্থের ৬২ শতাংশ খরচ করেছিলেন তিনি। কিন্তু যোগী সরকারের আমলে এসে সেই অর্থ এক ধাক্কায় অনেকটাই কমে গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button