টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

‘হোস্টেলে ভূত রয়েছে!’ অভিযোগে অন্যত্র হোস্টের দাবী তুলল দুর্গাপুরের নার্সিং ছাত্রীরা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ‘হোস্টেলে (hostel) ভূত রয়েছে। হয় অন্যত্র হোস্টেলের ব্যবস্থা করতে হবে, নাহয় আমাদের বাড়ি যেতে দিতে হবে’- এমনটাই দাবি করলেন দুর্গাপুরের (Durgapur) এক হোস্টেলের নার্সিং ছাত্রীরা। কিন্তু ছাত্রীদের এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে হোস্টেল কর্তৃপক্ষ। তাঁরা দাবী করেছে, ‘সামনেই অফলাইন পরীক্ষা রয়েছে। আর অনলাইন পরীক্ষা ভেবে, পড়াশুনা না করার কারণেই এমনই ভূতের অভিযোগ তুলেছে ছাত্রীরা’।

ঘটনাটি ঘটেছে দুর্গাপুরের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের বিধাননগরের এক বেসরকারি হোস্টেলে। জানা গিয়েছে, এখানে মোট ৯৮ জন ছাত্রী থাকেন, যারা দুর্গাপুরের শোভাপুরের পাশে একটি বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বর্তমানে নার্সিং ট্রেনিং নিচ্ছেন। তাঁদের অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার ছাত্রীরা এবং তাঁদের অভিভাবকরা হোস্টেলেই মধ্যেই বিক্ষোভ দেখায়। তবে পুলিশি হস্তক্ষেপে পরে এই বিক্ষোভ তুলে দেওয়া হয়।

ছাত্রীদের অভিযোগ, বিগত এক সপ্তাহ ধরে সন্ধ্যের পর থেকেই হোস্টেল চত্বরে নানারকম ভৌতিক শব্দ শোনা যাচ্ছে। যার কারণেই রীতিমতো ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে থাকতে হচ্ছে সকল ছাত্রীদের। কিন্তু এই বিষয়ে হোস্টেল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোন লাভ হয়নি, তাঁরা কোন ব্যবস্থাই নিচ্ছে না বলে অভিযোগ তাঁদের। এখন ছাত্রীদের দাবী, হয় অন্যত্র হোস্টেলের ব্যবস্থা করতে হবে, না হয় বাড়ি যেতে দিতে হবে।

এবিষয়ে ছাত্রীদের করা অভিযোগকে নস্মাৎ করে দিয়ে হোস্টেল আধিকারিক শিউলি মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘সামনেই ছাত্রীদের পরীক্ষা রয়েছে। আর অফলাইন পরীক্ষা হওয়ার ভয়ে তাঁরা বাড়ি যাওয়ার জন্য এমন ভূতুড়ে অভিযোগ তুলছেন। আমাদের পক্ষে অন্যত্র হোস্টেলের ব্যবস্থা করা সম্ভব নয়। কেউ বাড়ি যেতে চাইলে, আবেদনপত্র জমা দিয়ে বাড়ি যেতে হবে’।

Related Articles

Back to top button