fbpx
টাইমলাইনরাজনীতি

যদি CAA এর মাধ্যমে মুসলিমদের দেশের বাইরে করে দেওয়া হয়, তাহলে বৃহত্তর আন্দোলন হবেঃ চিদম্বরম

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ কংগ্রেস (congress) নেতা তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম (P Chidambaram) দিল্লীর জওহর লাল বিশ্ববিদ্যালয়ে সিএএ (CAA) আর এনআরসি (NRC) সমেত অনেক ইস্যুতেই চর্চা করেন। চিদম্বরম বলেন, নাগরিকতা নিয়ে সংবিধানে লেখা আছে যে, কেউ যারা এদেশে থাকে অথবা ওনার অভিভাবক এদেশের নাগরিক ছিলেন, তাহলে তাঁদের দেশের নাগরিক মানা হবে। উনি বলেন, সংবিধানে নাগরিকতার সাথে জড়িত ধারার শব্দ গুলোকে অন্তিম রুপ দেওয়ার জন্য সংবিধান সভার তিন মাসের সময় লেগেছিল।

চিদম্বরম বলেন, সম্পূর্ণ বিল পাশ করাতে মাত্র তিনদিন সময় লেগেছিল আর নেহরু, আম্বেদকরকে নাগরিকতার সাথে জড়িত ধারা গুলোকে অন্তিম রুপ দিতে তিন মাস সময় লেগেছিল। চিদম্বরম মোদী সরকারে উপরে প্রশ্ন তুলে বলেন, সরকার সংবিধানের প্রাথমিক স্তম্ভ গুলোকে কমজোর করার কাজ করছে। উনি বলেন, ভারত ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকতা দেয়না।

চিদম্বরম বলেন, কংগ্রেস আর বামদের বিরোধ যাঁদের বিলের বাইরে রাখা হয়েছে তাঁদের নিয়ে। যাঁদের নাগরিকতার আওতায় রাখা হয়েছে, তাঁদের নিয়ে না। বিজেপি বলছে, কংগ্রেস প্রতারিত হিন্দু, শিখদের নাগরিকতা দেওয়ার বিরোধিতা করে। এটা মিথ্যে কথা। উনি বলেন, শরণার্থীদের নিয়ে একটি বিস্তৃত আইন হওয়ার দরকার আমার মতে।

চিদম্বরম বলেন, নাগরিকতা সংশোধন আইন অসমের মানুষদের বাইরে বের করার জন্য আনা হয়েছে, ১২ লক্ষ হিন্দুদের ভারতীয় নাগরিকতা দেওয়া আর সাত লক্ষ মুসলিমদের ভারতের বাইরে পাঠানোর জন্য এই আইন আনা হয়েছে।

চিদম্বরম অভিযোগ করে বলেন, মোদী সরকার মুসলিমদের রাজ্য বিহীন করার চেষ্টা করছে। চিদম্বরম অভিযোগ করে বলেন, মুসলিমদের হয়ত দেশের বাইরে করার চেষ্টা করা হবে, নাহলে জোর করে ডিটেশন ক্যাম্পে ঢোকানো হবে। উনি বলেন, যদি এরকম করা হয় তাহলে তখন বড় আন্দোলন হবে। উনি বলেন, আমাদের দাবি হল, প্রতিবেশী দেশ থেকে আসা সমস্ত ধর্মের মানুষদের ভারতীয় নাগরিকতা দিতে হবে।

Back to top button
Close
Close