টাইমলাইনভারত

বৃদ্ধদের জন্য ভারতের প্রথম স্টার্টআপ লঞ্চ, বিনিয়োগ করেছেন খোদ রতন টাটা

বাংলা হান্ট ডেস্ক: প্রবীণ শিল্পপতি রতন টাটা (Ratan Tata)-কে চেনেন না এমন মানুষ কার্যত খুঁজে পাওয়া মুশকিল। বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজ এবং নতুন নতুন উদ্যোগ তথা স্টার্টআপের উদ্দেশ্যে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে তিনি প্রায়ই খবরের শিরোনামে থাকেন। এমতাবস্থায়, আজকাল টাটার সঙ্গে এক যুবককেও দেখা যাচ্ছে। কোঁকড়া চুলের ওই অল্পবয়স্ক যুবক রীতিমতো “ছায়াসঙ্গী” হয়ে রয়েছেন রতন টাটার। পাশাপাশি, বর্ষীয়ান শিল্পপতি তাঁর এই “বন্ধু”-র সাহচর্য উপভোগও করেন। শুধু তাই নয়, ওই যুবকের ব্যবসায়িক মতামত এবং সৃজনশীল ধারণাগুলিরও ভক্ত হলেন টাটা।

ইতিমধ্যেই গত বছর, রতন টাটার ৮৪ তম জন্মদিনে, ওই যুবকের সাথে তাঁর একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। এমতাবস্থায়, ওই যুবকের পরিচয় জানতে রীতিমতো উদগ্রীব হয়ে ওঠেন নেটিজেনরা। জানিয়ে রাখি যে, ওই যুবকের নাম হল শান্তনু নাইডু। তিনি কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা করেছেন। জানা গিয়েছে, নাইডু তাঁর MBA ডিগ্রি শেষ করার পরে ২০১৮ সালে ভারতে ফিরে আসেন। প্রথমে টাটা ট্রাস্টের চেয়ারম্যানের অফিসে ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার হিসেবে যোগদান করেন তিনি। এদিকে, গত মঙ্গলবার শান্তনু নাইডুর “Goodfellows” নামক একটি স্টার্টআপে বিনিয়োগের ঘোষণা করেন রতন টাটা। এই সংস্থাটির প্রতিষ্ঠাতা হলেন শান্তনু নিজেই।

জানা গিয়েছে, গত মঙ্গলবার এই ঘোষণা করা হলেও বিনিয়োগের পরিমানটি প্রকাশ করা হয়নি। তবে, এটাই প্রবীণ নাগরিকদের জন্য দেশের প্রথম কম্প্যানিয়নশিপ স্টার্টআপ। এটির উদ্দেশ্য হল যুবক ও শিক্ষিত স্নাতকদের সহায়তায় বয়স্কদের সাহায্য করা। ইতিমধ্যেই “Goodfellows” গত ছয় মাসে একটি সফল বিটা সম্পন্ন করেছে। এখন এটি খুব শীঘ্রই মুম্বাই, পুণে, চেন্নাই এবং বেঙ্গালুরুতে উপলব্ধ হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ভারতে প্রায় ৫ কোটি প্রবীণ মানুষ একা থাকেন। পাশাপাশি, অনেকেই একাকীত্বেও ভোগেন। এমতাবস্থায়, “Goodfellows”-এর ব্যবসায়িক মডেল একটি “ফ্রিমিয়াম” সাবস্ক্রিপশন মডেল। একদম প্রথম মাসে এই পরিষেবা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পাওয়া যায়। যদিও দ্বিতীয় মাসের পরে একটি সামান্য মেম্বারশিপ ফি নেওয়া হয়। যা পেনশনভোগীদের সীমিত সামর্থ্যের উপর ভিত্তি করে নির্ধারণ করা হয়েছে। পাশাপাশি, “Goodfellows” চাকরি খুঁজছেন এমন স্নাতকদের স্বল্পমেয়াদী ইন্টার্নশিপ সহ কর্মসংস্থানের সুযোগ প্রদান করে।

কে এই শান্তনু নাইডু: আপনাদের প্রথমেই জানিয়েছি যে, এই নতুন স্টার্টআপের প্রতিষ্ঠাতা হলেন শান্তনু নাইডু। তিনি ২০১৮ সাল থেকে টাটাকে সহায়তা করছেন। পাশাপাশি, শান্তনু টাটাকে একজন বস, একজন পরামর্শদাতা এবং একজন বন্ধু হিসেবে সম্বোধন করেছেন। পাশাপাশি, টাটাও শান্তনুর মতামতগুলিকে বিশেষ গুরুত্ব দেন।

গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর রতন টাটা তাঁর ৮৪ তম জন্মদিন শান্তনুর সাথেই পালন করেন। পাশাপাশি, এই সংক্রান্ত একটি ভিডিও ভাইরালও হয় নেটমাধ্যমে। যেখানে দেখা গিয়েছে, রতন টাটাকে কেক খাইয়ে দিচ্ছেন শান্তনু এবং তাঁর কাঁধে হাত রাখতেও দেখা যায় তাঁকে। উল্লেখ্য যে, শান্তনু ১৯৯৩ সালে পুণেতে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর মধ্যে বিভিন্ন প্রতিভা রয়েছে। তিনি একজন ব্যবসায়ী, ইঞ্জিনিয়ার, সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েনসার, লেখক এবং উদ্যোক্তা হিসেবে পরিচিত। পাশাপাশি, শান্তনু টাটা ট্রাস্টের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার। শান্তনু তাঁর পরিবারের পঞ্চম প্রজন্ম যিনি টাটাতে কর্মরত রয়েছেন। এছাড়াও, ২০১৪-র সেপ্টেম্বর থেকে তিনি টাটা ট্রাস্টের সাথে কাজ করছেন বলেও জানা যায়।

Related Articles