টাইমলাইনভারত

এবার খোদ সড়ক নির্মাণ মন্ত্রীর বাড়িতে ঢুকে গেল বৃষ্টির জমা জল, শোরগোল সোশ্যাল মিডিয়ায়

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ একটানা বৃষ্টিতে জলমগ্ন বিহার (Bihar), এই বৃষ্টিতে মানুষ পুরো নাজেহাল। রাস্তায় রাস্তায় জল। কথায় আছে, ‘একেই বোধহয় বলে ভাগ্যের পরিহাস।’ যাঁর কাঁধে গোটা এলাকাকে বানভাসী অবস্থা থেকে রক্ষা করার দায়িত্ব, সেই মন্ত্রীর বাড়িতেই কিনা বর্ষার জল ঢুকে পড়ল! এরই মধ্যে সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের পাঠানো ছবিতে শোরগোল পড়ল সোশ্যাল মিডিয়ার ট্যুইটার জুড়ে।

জানা গিয়েছে, দু’দিন ধরে বর্জ্র-বিদ্যুৎ-সহ লাগাতার বৃষ্টিতে নাজেহাল বিহার। সে রাজ্যের বিভিন্ন রাস্তায় জল জমে। ফলে যানবাহন চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। চূড়ান্ত ভোগান্তির শিকার স্থানীয়রা। সামান্য বৃষ্টি হলেই রাস্তায় জল জমে যায়। পর্যাপ্ত জলনিকাশী ব্যবস্থা না থাকায় যা নামতে অনেকটা সময় লাগে। এ সমস্যা দীর্ঘদিনেরই।

এলাকাবাসীরা অসুবিধার কথা জানালেও তা কানে তোলেনি প্রশাসন। এবার তারই ‘ফল’ ভোগ করতে হল সড়ক নির্মাণ মন্ত্রী (Road Construction Minister) নন্দকিশোর যাদবকে। বৃষ্টির জল জমা হতে হতে তা একেবারে ঢুকে পড়ল তাঁর পাটনার বাড়ির ভিতর।

এই ছবিকেই দেখে বিদ্রূপ করেছেন নেটিজেনরা। তাঁরা বলছেন এবার কেমন লাগবে যদি নিজে এই জমা জল পেরিয়ে অফিস যান। সাধারণ মানুষের কষ্টটা বুঝবেন তিনি। টানা তিন দিন ধরে বৃষ্টি চলছে বিহারে। খারাপ আবহাওয়ার সতর্কবার্তা ছিল আগে থেকেই। তবে তার চেহারা যে এতটা ভয়ঙ্কর হবে, তা ভাবা যায়নি। একে টানা বৃষ্টি, তার মধ্যে ঝোড়ো হাওয়া ও বজ্রবিদ্যুত।

পাটনা শহরের একাধিক জায়গায় জল জমে গিয়েছে। পুরোপুরি জলমগ্ন রাজবংশী নগর, রাজেন্দ্র নগর, কঙ্করবাগ এলাকা। রীতিমতো সমস্যায় পড়েছেন সাধারণ মানুষ। নিকাশি ব্যবস্থার বেহাল দশার জন্যই এই পরিস্থিতি বলে কটাক্ষ করেছেন বিহারের মানুষ। সেই পরিস্থিতি থেকে বাদ পড়েননি খোদ সড়ক নির্মাণ মন্ত্রীও।

সংবাদ সংস্থা এএনআই মন্ত্রীর বাড়িতে জমা জলের সেই ছবি টুইট করার পর থেকেই হাসির রোল নেটদুনিয়ায়। অনেকেই বলছেন, রাজ্যবাসীর ভাল-মন্দের খেয়াল না রাখার কর্মফলই পেলেন মন্ত্রী। কেউ কেউ আবার কটাক্ষের সুরে লিখেছেন, মন্ত্রীর বাড়ি পর্যন্ত বিকাশ পৌঁছে গিয়েছে। নেটিজেনদের আশা, এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়েই হয়তো রাস্তা ঠিক করার উদ্যোগ নেবেন মন্ত্রী।

Back to top button